[…]বিটিসিএল-এর জন্য একনেকে ২৫৭৩.৪০ কোটি টাকার প্রকল্প অনুমোদন […]বিটিসিএল-এর জন্য একনেকে ২৫৭৩.৪০ কোটি টাকার প্রকল্প অনুমোদন

বিটিসিএল-এর জন্য একনেকে ২৫৭৩.৪০ কোটি টাকার প্রকল্প অনুমোদন

ইবার্তা টুয়েন্টিফোর ডটকম:
আপডেট সময়:অক্টোবর ১৮, ২০১৭ , ১:১৮ অপরাহ্ন
বিভাগ: টেকসই উন্নয়ন

জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি (একনেক) টেলি ডেনসিটি ও টেলি এক্সেস ফ্যাসিলিটি সম্প্রসারণের মাধ্যমে দেশে নির্ভরযোগ্য আধুনিক টেলিযোগাযোগ সার্ভিস গঠনে ২,৫৭৩.৪০ কোটি টাকা ব্যয় সম্বলিত একটি প্রকল্প অনুমোদন করেছে।
মঙ্গলবার শেরেবাংলা নগরে এনইসি সম্মেলন কক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে একনেক সভায় ‘মডার্নাইজেশন অব টেলিকমিউনিকেশন নেটওয়ার্ক ফর ডিজিটাল কানেক্টিভিটি’ শীর্ষক এই প্রকল্প অনুমোদন দেয়া হয়।
বৈঠক শেষে পরিকল্পনা মন্ত্রী আ হ ম মোস্তফা কামাল সাংবাদিকদের জানান, সভায় ৫,৭৮৩.৪ কোটি টাকা ব্যয় সম্বলিত মোট ১০টি প্রকল্প অনুমোদন দেয়া হয়।
তিনি বলেন, এসব প্রকল্পে মোট ব্যয়ের ৩,২৯৬.৩২ কোটি টাকা আসবে সরকারি কোষাগার থেকে। ১৫ কোটি টাকা আসবে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠান থেকে। বাকি ২,৪৭২.০৮ কোটি টাকা আসবে প্রকল্প সহায়তা হিসেবে।
রাষ্ট্র পরিচালিত বাংলাদেশ টেলিকমিউনিকেশন কোম্পানি লিমিটেড (বিটিসিএল) ২০২০ সালের জুনের মধ্যে ‘মডার্নাইজেশন অব টেলিকমিউনিকেশন নেটওয়ার্ক ফর ডিজিটাল কানেক্টিভিটি’ প্রকল্প বাস্তবায়ন করবে। মোট প্রকল্প ব্যয় ২,৫৭৩.৪০ কোটি টাকার মধ্যে সরকারি কোষাগার থেকে দেয়া হবে ৭৫৬ কোটি টাকা। বাকি ১,৮১৭ কোটি টাকা প্রকল্প সহায়তা হিসেবে চীন প্রদান করবে।
মোস্তফা কামাল বলেন, বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই প্রকল্পের কিছু ক্ষেত্রে ব্যয় আরো হ্রাসে চীনের সাথে আলোচনা করার জন্য ডাক ও টেলিযোগাযোগ সচিবকে প্রধান করে একটি কমিটি গঠন করতে সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দিয়েছেন।
একনেক সভায় বরিশাল ও খুলনার মধ্যে সড়ক যোগাযোগ দ্রুত ও নির্বিঘœ করতে কচা নদীর ওপর অষ্টম বাংলাদেশ-চীন মেত্রী সেতু নির্মাণ প্রকল্পও অনুমোদিত হয়। সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের অধীন সড়ক ও জনপথ অধিদফতর ৮২১.৮৪ কোটি টাকা ব্যয়ে ২০২১ সালের জানুয়ারির মধ্যে এই প্রকল্প বাস্তবায়ন করবে।
সভায় মন্ত্রী, প্রতিমন্ত্রী, পরিকল্পনা কমিশনের সদস্য এবং সংশ্লিষ্ট সচিবরা উপস্থিত ছিলেন।



নির্বাচন বার্তা