[…]সাকিব বুবলির পরকীয়ার কারণেই তালাক দেয়া হয়েছে অপুকে […]সাকিব বুবলির পরকীয়ার কারণেই তালাক দেয়া হয়েছে অপুকে

সাকিব বুবলির পরকীয়ার কারণেই তালাক দেয়া হয়েছে অপুকে

ইবার্তা টুয়েন্টিফোর ডটকম:
আপডেট সময়:ডিসেম্বর ৫, ২০১৭ , ২:২৭ পূর্বাহ্ন
বিভাগ: বিনোদন

 বিনোদন ডেস্কঃ 

অপুর কাছে ডিভোর্সের চিঠি পাঠিয়েছেন বাংলাদেশ চলচ্চিত্রের এক নম্বর হিরো শাকিব খান। স্ত্রী অপু বিশ্বাসকে ডিভোর্সের খবরটি নিশ্চিত করেছেন শাকিব খান। তিনি বলেন, ” ঘটনা সত্য অপুর কাছে আমি ডিভোর্স পেপার পাঠিয়েছি।  “ভারতের হায়দ্রাবাদ থেকে গণমাধ্যমকে এ তথ্য জানিয়েছেন শাকিব খান।

তিনি জানান,

৩০ নভেম্বর হায়দ্রাবাদ আসার আগে ডিভোর্স পেপারে স্বাক্ষর করেছি। এর বেশি এখন কিছু বলতে চাই না।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, এ ডিভোর্সের আইনজীবী সুপ্রিম কোর্টের শেখ সিরাজুল ইসলাম সিরাজ।তবে অনেক আগেই শাকিব- অপুর সংসারে ভাঙনের সুর অনেক আগেই বেজে উঠেছিল। কিন্তু সেই সুর এবার অফিসিয়ালি রুপ পেলো। শাকিব খান গত ৩০ নভেম্বর অপু বিশ্বাসের নিকেতনের বাসার ঠিকানায় চিঠি পাঠিয়েছেন। এরপর তিনি নোলক ছবির শুটিং এ ভারতের হায়দরাবাদে চলে যান।

ডিভোর্সের চিঠি পাঠানোর কারণ গুলোর অন্যতম একটি বিষয় ছিল অপুর ‘কথিত বয়ফ্রেন্ড’।  শাকিবের আইনজীবী সিরাজুল ইসলাম বলেন,

‘তালাক নোটিশে দুটি কারণ দেখিয়েছেন শাকিব। প্রথম অভিযোগ হিসেবে তিনি উল্লেখ করেছেন, অপু তাদের সন্তানকে বাসার কাজের লোকের কাছে রেখে, কথিত বয়ফ্রেন্ডকে নিয়ে ভারতে বেড়াতে গিয়েছিলেন। দ্বিতীয় অভিযোগ প্রসঙ্গে তিনি বলেছেন, যেহেতু অপু তার নির্দেশ মেনে চলেন না, ফলে তিনি এই বিবাহ বিচ্ছেদ চান’।

এদিকে তালাকনামা পাঠানোর খবর এবং ‘কথিত বয়ফ্রেন্ড’ কে জানার জন্য অপুর নিকেতনের বাসায় ভিড় করেছেন গণমাধ্যমকর্মীরা। যদিও অপু বিশ্বাস বাড়িতেই অবস্থান করছেন, কিন্তু এ মুহূর্তে তিনি কারো সঙ্গে কথা বলছেন না বা দেখা করছেন না। ফলে গণমাধ্যমকর্মীরা অপুর বক্তব্য পাওয়ার আশায় তার বাসার নিচে ভিড় জমাচ্ছেন।

অপু বিশ্বাস এখনো পর্যন্ত  সরাসরি কিছু না বললেও চলচ্চিত্রাঙ্গণের এবং তাদের পারিবারিক ঘনিষ্ঠজনদের সাথে কথা বলে জানা গিয়েছে, অপুর কথিত “বয়ফ্রেণ্ড” নয়, বরং সাকিব নিজেই আরেক চিত্রনায়িকা বুবলির সাথে পরকীয়া প্রেমে মত্ত অনেকদিন ধরেই। আর বুবলিকে বিয়ে করার জন্যই অপুকে তালাক দিয়েছেন সাকিব। অপুর ধর্মীয় নিয়ম না মানা বা কথিত বয়ফ্রেণ্ড থাকার বিষয়গুলো সব বানোয়াট।

শাকিবের একটি ঘনিষ্ঠসূত্রে খবর মিলেছে ফেব্রুয়ারীতে বুবলিকে বিয়ের ঘোষনা দিতে পারেন শাকিব খান। এমনটা হলে আশ্চর্য্য হওয়ার কিছু নেই। বুবলি তার জায়গা থেকে বরাবরই স্ট্রং ছিল। সে অপুর বিরুদ্ধে নানা সময়ে নানা কথা বললেও শাকিব এর প্রতিবাদ করেনি কখনো। বরং শাকিব বুবলির প্রশংসা করে বেড়াতেন। বুবলির সঙ্গে ছবি ব্যবসায়িকভাবে সফল না হলেও একের পর এক ছবিতে চুক্তিবদ্ধ হচ্ছে। এসব ছবিতে বুবলির চুক্তিবদ্ধতার পেছনে কলকাঠি নাড়ে স্বয়ং শাকিব। বুবলিকে যে ঘরে তুলতে পারে সে খবর অপুও আঁচ করতে পেরেছিল। সে জন্যই বরাবরই বুবলিকে কাছে ঘেষতে দেয়নি অপু। এই পরিপেক্ষিতেই টিভি সেটের সামনে অপু মুখ খুলেছে।

সাকিব বুবলির পরকীয়া প্রেমের নিষ্ঠুর বলি হয়েই সংসার ভাঙলো অপু বিশ্বাসের।

 



নির্বাচন বার্তা