[…]রাজধানীর সব বস্তি ওয়াসার আওতায় আসছে

রাজধানীর সব বস্তি ওয়াসার আওতায় আসছে

ইবার্তা টুয়েন্টিফোর ডটকম:
আপডেট সময়:সেপ্টেম্বর ২৬, ২০১৮ , ১০:২৫ পূর্বাহ্ন
বিভাগ: ফিচার
  • ॥ বস্তির ৮৫ হাজার পরিবার পাচ্ছে ওয়াসার পানি
  • ॥ ১৯৯৭ সালের আগ পর্যন্ত রাজধানীর কোন বস্তিতে বৈধ পানির সংযোগ ছিল না
  • ॥ ২০১৫ সালে যৌথভাবে বস্তিতে বৈধ পানির সংযোগ দেয়ার কাজ শুরু করে।
  • ॥ ২০১৯ সালের মধ্যে রাজধানীর সব বস্তিতে বৈধ পানির সংযোগ প্রদান করবে ওয়াশা।

রাজধানীর সব বস্তিই ওয়াসার পানি সরবরাহের আওতায় আনা হচ্ছে। কড়াইল বস্তিতে ৪৫৬টি বৈধ পানি সংযোগের মাধ্যমে ১৫ হাজার ৬৪০ পরিবারকে সেবার আওতায় আনার পর আরও ২২ বস্তিতে বৈধ পানির সংযোগ দেয়ার কাজ শুরু করেছে ঢাকা ওয়াসা। পর্যায়ক্রমে রাজধানীর ৩ শ’ বস্তিতে সংযোগের মাধ্যমে মোট ৬৩ হাজার ৬১৮টি পরিবারকে পানি সরবরাহ দেয়া হবে। ২২ বস্তিতে পানি সংযোগের কাজ এ বছরের ডিসেম্বরের মধ্যে শেষ হওয়ার কথা রয়েছে।

রাজধানীর বিভিন্ন বস্তিতে দুই হাজার ২৬৩টি সংযোগের মাধ্যমে ৮৫ হাজার ১৩০টি পরিবারকে বৈধ পানির আওতায় নিয়ে এসেছে ঢাকা ওয়াসা। ২০১০ সাল থেকে রাজধানীর নিম্ন আয়ের জনগোষ্ঠীকে বৈধ পানি সংযোগ দেওয়া শুরু হয়। এ ছাড়া ‘ঘুরে দাঁড়াও ঢাকা ওয়াসা ২০১০-২০১৩’ কর্মসূচির মাধ্যমে ঢাকার বস্তিবাসীদের বৈধ পানি সরবরাহ সেবার আওতায় আনার স্বীকৃতিস্বরূপ ওয়াটার লিডারস অ্যাওয়ার্ড অর্জন করে ওয়াসা। পুরস্কার থেকে প্রাপ্ত ৯ লাখ টাকাও রাজধানীর মহাখালীর সাততলা বস্তিতে পানি সংযোগে ব্যয় করেছে ওয়াসা।

সম্প্রতি ঢাকা ওয়াসা আটটি বেসরকারী সংস্থার (এনজিও) সঙ্গে চুক্তি স্বাক্ষর করেছে। চুক্তি অনুযায়ী, ২২টি বস্তিতে মোট ৩ হাজার ‘ওয়াটার পয়েন্ট’ স্থাপন করা হবে। বস্তিতে বৈধ পানির সংযোগ নিয়ে কাজ করা ঢাকা ওয়াসার ‘লো ইনকাম কমিউনিটি’ (এলআইসি) শাখার আওতায় এসব ওয়াটার পয়েন্ট স্থাপন করা হবে। এই প্রকল্পের অর্থায়ন করবে ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) ও ফরাসী উন্নয়ন সংস্থা (এএফডি)। চুক্তিতে স্বাক্ষর করা আটটি বেসরকারী সংস্থা ওয়াটার পয়েন্ট স্থাপনের কাজ বাস্তবায়ন কাজ শুরু করেছে। ওয়াসার এক কর্মকর্তা বলেন, নতুন প্রকল্পটি বাস্তবায়ন হলে বৈধ পানির সংযোগ পাওয়া বস্তির সংখ্যা হবে ৪৩০টি। এতে করে অতিরিক্ত আরও এক লাখ বস্তিবাসী নিরাপদ পানির সুবিধা পাবেন। ২০১০ সালে লো ইনকাম কমিউনিটি (এলআইসি) শাখার কার্যক্রম শুরু হয়। এই শাখার আওতায় গত বছর পর্যন্ত ৪০৮টি বস্তিতে পানির সংযোগ দেয়া হয়েছে। ঢাকা ওয়াসার সঙ্গে চুক্তিতে স্বাক্ষর করা বেসরকারী সংস্থার একটি দুস্থ স্বাস্থ্য কেন্দ্র (ডিএসকে)। সংস্থাটির পিহ্যাপ প্রকল্পের পক্ষ থেকে বলা হয়, ১৯৯৭ সালের আগ পর্যন্ত রাজধানীর কোন বস্তিতে বৈধ পানির সংযোগ ছিল না। ১৯৯৭ সালে তেজগাঁও এলাকার দুটি বস্তিতে বৈধ পানির সংযোগ দেয়ার মাধ্যমে এই কার্যক্রম শুরু হয়েছে। সংযোগ পেতে বস্তিবাসীর উদ্বুদ্ধ করার পাশাপাশি বস্তির বাসিন্দাদের নিয়ে কমিউনিটি বেসড অর্গানাইজেশন (সিবিও) কমিটি গঠন করা হবে। এই কমিটির মাধ্যমে বস্তির যে কেউ আবেদন করে বৈধ পানির সংযোগ নিতে পারবেন। চাহিদাপত্র, মিটার ও অন্যান্য আনুষঙ্গিক খরচ মিলে ১৩ থেকে ১৪ হাজার টাকা খরচ হবে। এই টাকা কিস্তিতে পরিশোধ করা যাবে।

তবে ওয়াসা জানিয়েছে, ওয়াসার সঙ্গে চুক্তি অনুযায়ী নতুন ২২টি বস্তিতে সংযোগ পেতে বস্তিবাসীর কোন খরচ হবে না। ১০ থেকে ২০টি পরিবারের জন্য একটি করে ওয়াটার পয়েন্ট স্থাপন করা হবে। সেখান থেকে তারা পানি সংগ্রহ করবে। মাস শেষে যে বিল আসবে তা ব্যবহারকারীদের সমভাবে বহন করতে হবে। চুক্তি অনুযায়ী, ডিএসকে ২২টি বস্তির মধ্যে ১১টি বস্তিতে ওয়াটার পয়েন্ট স্থাপন করবে। বস্তিগুলো হচ্ছে বেদের বস্তি, এরশাদনগর বস্তি, ভাঙ্গা দেয়াল বস্তি, গোডাউন বস্তি, স্যাটেলাইট বস্তি, রাজুর বস্তি, কুর্মিটোলা ক্যাম্প বস্তি, বালুর মাঠ বস্তি, কালাপানি বস্তি, বেগুনটিলা বস্তি ও মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স বস্তি।

ঢাকা ওয়াসা এবং ওয়াটার এ্যান্ড স্যানিটেশন ফর দ্য আরবান পওর নামের (ডব্লিউএসইউপি) একটি সংস্থা ২০১৫ সালে যৌথভাবে বস্তিতে বৈধ পানির সংযোগ দেয়ার কাজ শুরু করে। ২০১৯ সালের মধ্যে রাজধানীর সব বস্তিতে বৈধ পানির সংযোগ প্রদানের লক্ষ্যে ঢাকা ওয়াসা অঙ্গীকারাবদ্ধ।

 

ডব্লিউএএসইউপির সঙ্গে চুক্তি স্বাক্ষরের পর বস্তিবাসীর জন্য ঢাকা ওয়াসার সেবা দেয়ার ক্ষেত্রে বিশেষ অগ্রগতি হয়েছে। তাদের সহযোগিতায় প্রকল্পের কাজ অনেকটা সহজ হবে। দীর্ঘদিন ধরে রাজধানীর বস্তিবাসীর জন্য পানি ও স্যুয়ারেজ সেবা দেয়ার জন্য কাজ করা হচ্ছে। ডব্লিউএএসইউপি সহযোগিতার হাত বাড়ানোর আগেই কযেকটি বস্তিতে বৈধ পানির সংযোগ ও স্যুয়ারেজ লাইন স্থাপনের কাজ শুরু করেছি। কড়াইল বস্তিতে ৪৫৬টি বৈধ পানির সুংযোগ স্থাপন করা হয়েছে। আগে এ সব বস্তিতে পানির সংযোগ ছিল অবৈধ। সংযোগগুলো বৈধ হওয়ায় সরকারের রাজস্বও আসছে। নিম্নআয়ের জনগোষ্ঠীকে বৈধ পানি সরবরাহ সেবা প্রদানের ক্ষেত্রে সহায়তার জন্য তিনি উন্নয়ন সহযোগী প্রতিষ্ঠানসমূহ স্থানীয় বিভিন্ন এনজিওকেও এগিয়ে আসার আহ্বান জানানো হয়। বস্তিবাসীর জন্য ঢাকা ওয়াসার কাজকে তৃতীয় বিশ্বের জন্য একটি ‘রোল মডেল’ বলে উল্লেখ করা হয়েছে। এবার ৮টি প্রতিষ্ঠান রাজধানীর ২২ বস্তিতে পানি সংযোগ দেয়ার কাজ করবে। পর্যায়ক্রমে রাজধানীর সব বস্তিতে পানি সংযোগ দেয়ার কাজ করা হবে।

ফিচার - বিভাগের আরও সংবাদ



নির্বাচন বার্তা