শনিবার, ১৬ জানুয়ারী ২০২১, ০৭:৪৩ অপরাহ্ন

গরীবের টাকা আত্মসাত মামলায় যুদ্ধাপরাধী সাঈদীর বিচার শুরু

সুভাষ হিকমত
আপডেট : বুধবার, ১৩ জানুয়ারী, ২০২১

ইসলামী ফাউন্ডেশনের যাকাত তহবিল থেকে গরীবদের জন্য বরাদ্দকৃত ১ কোটি ২৭ লাখ ৫০ হাজার টাকা আত্মসাৎ মামলায় যুদ্ধাপরাধী দেলাওয়ার হোসেন সাঈদী ওরফে দেইল্লা রাজাকারের বিরুদ্ধে বিচার শুরু হয়েছে।

বকশীবাজারের আলিয়া মাদ্রাসা মাঠে স্থাপিত অস্থায়ী ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-১ এর বিচারক সৈয়দা হোসনে আরা সোমবার সাঈদী সহ ৬ আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেন ।

আগামী ১৭ ফেব্রুয়ারি সাঈদীর বিরুদ্ধে আদালতে সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু হবে।

সকালেই মামলার প্রধান আসামি দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীকে আদালতে হাজির করা হয়। জামিনে থাকা তিন আসামি হলেন- ইসলামিক ফাউন্ডেশনের সাবেক পরিচালক মোহাম্মদ লুৎফুল হক, বন্ধুজন পরিষদের প্রধান সম্পাদক মিয়া মোহাম্মদ ইউনুস, ইসলামী সমাজ কল্যাণ কেন্দ্রের সাবেক সভাপতি তোফাজ্জল হোসেন। এছাড়া আসামি আবুল কালাম আজাদ এবং আব্দুল হক পলাতক।

মামলার সূত্রে জানা যায়, সাঈদীর নির্দেশে আসামিরা যোগসাজস করে ২০০৫-০৬ অর্থ বছরে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের যাকাত বোর্ডের ১ কোটি ১৪ লাখ ৫০ হাজার টাকা এবং ২০০৪-০৫ অর্থ বছরের ১৩ লাখ টাকা সহ গরীব ও দুস্থদের যাকাত তহবিলের মোট ১ কোটি ২৭ লাখ ৫০ হাজার টাকা আত্মসাৎ করেন। দেশের ৬৪ জেলার গরিব ও দুস্থদের জন্য সংরক্ষিত বরাদ্দ নিজেদের দলীয় প্রতিষ্ঠানে বরাদ্দ দিয়ে আত্মসাৎ করা হয়। এই টাকা ধর্মবিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির তৎকালীন সভাপতি দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীর ইসলামী সমাজ কল্যাণ কেন্দ্র, সাবেক ধর্ম প্রতিমন্ত্রী মোশারেফ হোসেন শাহজাহান, জাতীয় বন্ধুজন পরিষদ, কাঁঠালিয়া মুসলিম এ কে ইনস্টিটিউট, মাওলানা আবুল কালাম আযাদের মসজিদ কাউন্সিল ফর কামউনিটি অ্যাডভান্সমেন্ট ও দারুল কারার সোসাইটির নামে তোলা হয়।
তদন্ত করে দুদকের সহকারী পরিচালক ওয়াজেদ আলী গাজী ২০১২ সালের ৩০ এপ্রিল আদালতে অভিযোগপত্রের সঙ্গে প্রমাণাদি দাখিল করেন।


আরও সংবাদ