মঙ্গলবার, ০২ মার্চ ২০২১, ১২:৪৯ পূর্বাহ্ন
শীর্ষ সংবাদ
স্বৈরাচার জিয়ার নির্দেশে ঢাকা, কুমিল্লা ও বগুড়া কারাগারে ২০৯ জনের ফাঁসির তালিকা মুশতাক-সামি-তাসনিম খলিল গংদের বাকস্বাধীনতার নমুনা বঙ্গবন্ধুর স্মৃতি বিজড়িত ১ মার্চ জাতীয় বীমা দিবসে প্রধানমন্ত্রী যা বললেন ঐতিহাসিক ‘৭ মার্চ’ উদযাপনে হঠাৎ বিএনপির বোধদয় কেন? শিক্ষার উন্নয়ন ও প্রসারে বিত্তবানদের এগিয়ে আসার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর উন্নয়নশীল দেশের কাতারে বাংলাদেশ এবং চ্যালেঞ্জ দেশ-বিরোধী চক্রান্ত ও বাক স্বাধীনতার সীমারেখা কিশোর-মুশতাকের জামিন নাকচ যে কারনে : একই চক্রে তাসনিম খলিল-সামি স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণ বাংলাদেশের মার্কিন দূতাবাস এবং ঢাকাস্থ বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রদূতদের বিবৃতি লিখে দিলো কে?

তৌসিফের বিরুদ্ধে তরুণীর ৫ লাখ টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ, পাল্টাপাল্টি জিডি ।

সুভাষ হিকমত
আপডেট : রবিবার, ১৭ জানুয়ারী, ২০২১

‘নাটকের অভিনেত্রী বানাবেন’ বলে বিভিন্ন সময় ৫ লাখ টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ উঠেছে অভিনেতা তৌসিফ মাহবুবের বিরুদ্ধে। এ অভিযোগ করেছেন শামসুন্নাহর কনা নামে এক গৃহবধূ। শনিবার (১৬ জানুয়ারি) সকালে রাজধানীর হাতিরঝিল থানায় হাজির হয়ে তৌসিফের বিরুদ্ধে সাধারণ ডায়েরিও (জিডি) করেছেন তিনি। যার নম্বর ৭৫৫।

এদিকে এ অভিযোগ মিথ্যা উল্লেখ করে ১৭ জানুয়ারি (রোববার) মধ্যরাতে ধানমণ্ডি মডেল থানায় হাজির হয়ে পাল্টা সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছেন তৌসিফ। যার নম্বর ৮৬৮।

জিডিতে তৌসিফ উল্লেখ করেন, শামসুন্নাহার কনা (৩৬) নামের গৃহবধূ যে অভিযোগ করেছেন তা সম্পূর্ণ মিথ্যা ও ভিত্তিহীন। অভিনেতার মান সম্মান ক্ষুণ্ণ করে, সামাজিকভাবে হেয় প্রতিপন্ন করার জন্য উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে তার বিরুদ্ধে ওই জিডি করা হয়েছে।

তৌসিফ এ প্রসঙ্গে বলেন, ‘আমার আইডি ভেরিফায়েড করা। কেউ যদি ভুল জায়গায় গিয়ে প্রতারণার শিকার হয় সেটার দায়ভার আমি কেন নেবো। আর এভাবে কেউ কাউকে এত টাকা দেয় নাকি। আমি সাইবার ক্রাইমের সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে এরইমধ্যে কথা বলেছি। ওই তরুণীর বিরুদ্ধে মানহানির মামলা করব। তিনি আমাকে সবার কাছে ছোট করার চেষ্টা করছেন।’

এদিকে তৌসিফের বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা শামসুন্নাহর কনা তার জিডিতে উল্লেখ করেছেন, ফেসবুকে তৌসিফের সঙ্গে ১৮ মাস আগে পরিচয় হয় তার। তারপর অভিনেত্রী বানিয়ে দেয়ার প্রলোভন দেখিয়ে ওই আইডি থেকে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন মাধ্যমে ৫ লাখ টাকা নেয়া হয়েছে।

গত ছয় মাস আগে ০১৬**৯৭৮৯০৯ এই নাম্বারে কনার কাছ থেকে বিশ হাজার টাকা নেন তৌসিফ। এরপর তৃতীয় পক্ষ শাহরিয়া হোসেনের মাধ্যমে সোনালী ব্যাংক, সাহাপুর শাখা, চাটখিল, নোয়াখালী অ্যাকাউন্ট নং ৩৪১০০৪৪১ হিসাবের মাধ্যমে বিভিন্ন সময়ে আরও তিন লাখ বিশ হাজার টাকা নেন। টাকা নেওয়ার পর তৌসিফ তরুণীর সঙ্গে আর কোনো যোগাযোগ করেননি। তার ব্যবহৃত সব নম্বর বন্ধ করে দেন।


আরও সংবাদ