মঙ্গলবার, ০৯ মার্চ ২০২১, ০৬:৪৮ পূর্বাহ্ন
শীর্ষ সংবাদ
বিএনপির ঐতিহাস ৭ই মার্চ পালন মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস বিকৃতির আরেকটা প্রচেষ্টা মাত্র বাক স্বাধীনতার নামে দেশবিরোধী চক্রের গুজব সন্ত্রাস লিঙ্গ সমতায় বাংলাদেশ এখন রোল মডেল : আরও যোগ্য হওয়ার পরামর্শ প্রধানমন্ত্রীর জাতিসংঘের প্রতিটি ভাষায় ৭ মার্চের ভাষণ : বাংলাদেশে ডাকটিকিট অবমুক্ত বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডের চক্রান্তের স্ক্র্যাপ ও খুনিদের পুনর্বাসন ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ৫০ বছর কালজয়ী এই ভাষণ বিশ্বের শোষিত, বঞ্চিত ও মুক্তিকামী মানুষকে সবসময় প্রেরণা যুগিয়ে যাবে দীর্ঘদিন পর গণভবনের বাইরে এসে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা সফল তিন নেতার একজন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী ৭ মার্চের ভাষণ : পটভূমি ও তাৎপর্য

ইংরেজি ভার্সন চালুর ঘোষণা দেশের সব প্রাথমিক বিদ্যালয়ে

সুভাষ হিকমত
আপডেট : রবিবার, ৩১ জানুয়ারী, ২০২১

দেশের সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোতে ইংরেজি ভার্সন চালু করা হবে। প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোকে আকর্ষণীয় করে তুলতে এমন চিন্তাভাবনা করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী জাকির হোসেন। এ লক্ষ্যে দুই হাজার শিক্ষককে বিশেষ প্রশিক্ষণ দিয়ে মাস্টার ট্রেইনার হিসেবে তৈরি করা হচ্ছে।

রোববার (৩১ জানুয়ারি) সকালে রাজধানীর একটি হোটেলে প্রাথমিক শিক্ষকদের প্রশিক্ষণ কার্যক্রমের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ কথা জানান প্রতিমন্ত্রী।

জাকির হোসেন বলেন, ‘সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোতে বাংলার পাশাপাশি ইংরেজি ভার্সন চালু করার চিন্তা রয়েছে। এটি চালু হলে প্রাথমিকের বাংলার পাশাপাশি ইংরেজি ভার্সনেও পড়ার সুযোগ পাবে শিক্ষার্থীরা।’

প্রতিমন্ত্রী জানান, প্রথম পর্যায়ে রাজধানী ঢাকাসহ বিভাগীয় পর্যায়ে পাইলটিং হিসেবে ইংরেজি ভার্সনের ক্লাস শুরু হবে। পর্যায়ক্রমে দেশের সব স্কুলে এটি চালু করা হবে। এজন্য দুই হাজার শিক্ষককে ট্রেনিং দিয়ে মাস্টার ট্রেইনার হিসেবে তৈরি করা হচ্ছে। তারা ধাপে ধাপে দেশের সব প্রাথমিক বিদ্যালয় শিক্ষকদের প্রশিক্ষণ দেবেন। ব্রিটিশ কাউন্সিলের সঙ্গে এ সংক্রান্ত একটি চুক্তি হয়েছে।

এ বাবদ ৪৬ কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

এদিকে, প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি বলেন, ১২ বছর বাধ্যতামূলক ইংরেজি বিষয় পড়ার পরও আমাদের ৪ কোটি শিক্ষার্থীর মধ্যে ইংরেজি ভাষায় দুর্বলতা দেখা যায়। ব্রিটিশ কাউন্সিলের মাধ্যমে এ প্রশিক্ষণ কর্মসূচি একটি ইতিবাচক ভূমিকা রাখবে।

ব্রিটিশ কাউন্সিলের মাধ্যমে মাস্টার ট্রেইনারদের মাধ্যমে প্রাথমিকের শিক্ষকরা ইংরেজি ভাষায় দক্ষ হয়ে উঠবেন বলেও তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব জিএম হাসিবুল আলম বলেন, প্রাথমিক বিদ্যালয়ে অনেক শিক্ষকের মধ্যে ইংরেজি ভাষায় যে দুর্বলতা রয়েছে তা দূর করতে এই কার্যক্রম হাতে নেয়া হয়েছে। ফলে এসজিডি ৪ বাস্তবায়নে ভূমিকা রাখবে।

ভবিষ্যতে বাংলা বিষয়েও এ ধরনের কর্মসূচি নেয়া হবে বলেও জানান তিনি।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক মনসুর আলম, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাসহ দেশের বিভিন্ন এলাকার প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকরা।


আরও সংবাদ