1. alamin@ebarta24.com : ডেস্ক রিপোর্ট : ডেস্ক রিপোর্ট
  2. online@ebarta24.com : অনলাইন ডেস্ক : অনলাইন ডেস্ক
  3. reporter@ebarta24.com : নিজস্ব প্রতিবেদক : নিজস্ব প্রতিবেদক
  4. news@ebarta24.com : নিউজ এডিটর : নিউজ এডিটর
মিয়ানমারের জান্তা সরকারের বিরুদ্ধে ভারতে বোমাবর্ষণের অভিযোগ - ebarta24.com
  1. alamin@ebarta24.com : ডেস্ক রিপোর্ট : ডেস্ক রিপোর্ট
  2. online@ebarta24.com : অনলাইন ডেস্ক : অনলাইন ডেস্ক
  3. reporter@ebarta24.com : নিজস্ব প্রতিবেদক : নিজস্ব প্রতিবেদক
  4. news@ebarta24.com : নিউজ এডিটর : নিউজ এডিটর
মিয়ানমারের জান্তা সরকারের বিরুদ্ধে ভারতে বোমাবর্ষণের অভিযোগ - ebarta24.com
রবিবার, ২৯ জানুয়ারী ২০২৩, ০৫:৫৪ পূর্বাহ্ন

মিয়ানমারের জান্তা সরকারের বিরুদ্ধে ভারতে বোমাবর্ষণের অভিযোগ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
  • সর্বশেষ আপডেট : শনিবার, ১৪ জানুয়ারী, ২০২৩

ভারতে বোমাবর্ষণের অভিযোগ উঠেছে প্রতিবেশী মিয়ানমারের জান্তা সরকারের বিরুদ্ধে। বলা হচ্ছে, বিদ্রোহীদের বিরুদ্ধে অভিযান চালাতে গিয়ে মিজোরামের অভ্যন্তরে বোমাবর্ষণ করেছে বর্মি বাহিনী। তবে এতে কোনও হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি। এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে যুক্তরাজ্যভিত্তিক সংবাদমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ান।

প্রতিবেদনে বলা হয়, গত ১০ জানুয়ারি সীমান্ত মিয়ানমারের চিন রাজ্যে সশস্ত্র বিদ্রোহীগোষ্ঠী চিন ন্যাশনাল আর্মির (সিএনএ) ওপর বিমান হামলা চালায় দেশটির সামরিক বাহিনী। বিমান বাহিনীর উড়োজাহাজ থেকে সীমান্ত এলাকায় সিএনএ-র সদর দফতরকে লক্ষ্যবস্তুতে পরিণত করা হয়। বিমান থেকে বোমাবর্ষণের সময় অন্তত দুইটি সীমান্তের ওপারে ভারতের ফারকাওয়ান গ্রামে গিয়ে পড়ে।

দিল্লির তরফে আনুষ্ঠানিকভাবে এ ব্যাপারে কোনও মন্তব্য পাওয়া যায়নি। তবে ভারতীয় সেনাবাহিনীর একজন কর্মকর্তা বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, ‘সীমান্ত এলাকার সম্প্রতিক অস্থিরতা সম্পর্কে আমরা অবগত। সামগ্রিক পরিস্থিতি এখন আমাদের নিবিড় পর্যবেক্ষণের আওয়ায় রয়েছে।’

ফারকাওয়ান গ্রাম পরিষদের সদস্য রামা দ্য জানান, মঙ্গলবার সন্ধ্যার ওই ঘটনায় গ্রামবাসীরা আতঙ্কিত হয়ে পড়েছিল। দুটি বোমা পড়ার পর রাতে আরও বোমা হামলার আশঙ্কা করছিল তারা।

২০২১ সালের ১ ফেব্রুয়ারি মিয়ানমারের অং সান সু চির নেতৃত্বাধীন সরকারকে উৎখাত করে ক্ষমতা দখল করে দেশটির সেনাবাহিনী। এর বিরুদ্ধে ব্যাপক বিক্ষোভ শুরু হলে সহিংস দমননীতি গ্রহণ করে জান্তা সরকার। এতে এখন পর্যন্ত নিহত হয়েছে কয়েক হাজার বিক্ষোভকারী। এই সহিংসতার জেরে কয়েকটি সশস্ত্র গোষ্ঠী সম্মিলিত হয়ে গঠন করে পিপলস ডিফেন্স ফোর্সেস (পিডিএফ)। শিন ন্যাশনাল আর্মিও পিডিএফের অন্যতম সদস্য।

 

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

এ বিভাগের আরও সংবাদ
ebarta24.com © All rights reserved. 2021