শনিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০২:১৯ পূর্বাহ্ন
শীর্ষ সংবাদ
জাতিসংঘে বঙ্গবন্ধুর ভাষণ : বিশ্ব সভায় বাংলা ভাষার প্রথম আনুষ্ঠানিক প্রতিনিধিত্ব গার্ডিয়ানে প্রকাশিত শেখ হাসিনার নিবন্ধ: ‘আ থার্ড অফ মাই কান্ট্রি ওয়াজ জাস্ট আন্ডারওয়াটার। দ্য ওয়ার্ল্ড মাস্ট অ্যাক্ট অন ক্লাইমেট’ হেফাজতের কর্তৃত্ব যাচ্ছে দেওবন্দের কাফের ঘোষিত জামায়াতের কব্জায় ! অনলাইনে মিলছে টিসিবির পেঁয়াজ আজ টিউলিপ সিদ্দিকের জন্মদিন বাংলাদেশের সঙ্গে রাজনৈতিক ও বাণিজ্যিক সম্পর্ক বাড়াতে চায় যুক্তরাষ্ট্র প্রধানমন্ত্রীকে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষামন্ত্রীর ফোন ফ্রন্টিয়ার, ইমার্জিং ও ডেভেলপড মার্কেট রিটার্নে সবার ওপরে বাংলাদেশ মুজিববর্ষে প্রাপ্তি ও প্রত্যাশা হাসি ফিরেছে পাট চাষিদের মুখে

পুলিশের ওপর হামলা সহ্য করা হবে না ॥ প্রধানমন্ত্রী

ইবার্তা ডেস্ক
আপডেট : বৃহস্পতিবার, ১ ফেব্রুয়ারী, ২০১৮

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গত মঙ্গলবার রাজধানীতে পুলিশের ওপর হামলার তীব্র সমালোচনা করেছেন। তিনি কঠোর হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেন, ভবিষ্যতে এ ধরনের হামলা আর সহ্য করা হবে না। তিনি বলেন, আইনশৃঙ্খলা বজায় রাখতে আইন প্রয়োগকারী সংস্থাগুলো শক্তিশালী ভূমিকা পালন করছে। এমনকি জনগণের জানমাল রক্ষায় তারা জীবন উৎসর্গ করছে।

তিনি বলেন, ‘গতকালও পুলিশের ওপর ন্যক্কারজনক হামলার ঘটনা ঘটেছে। এ ধরনের জঘন্য ঘটনা আমরা ভবিষ্যতে সহ্য করব না।’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বুধবার সন্ধ্যায় গণভবনে পুলিশের নতুন আইজি জাবেদ পাটোয়ারীকে র‌্যাঙ্ক ব্যাজ পরিয়ে দেয়ার সময় এ হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেন। এ সময় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল এবং বিদায়ী আইজিপি এ কে এম শহীদুল হক উপস্থিত ছিলেন।

শেখ হাসিনা সন্ত্রাস, জঙ্গীবাদ ও মাদক নির্মূলে দেশবাসীর সহযোগিতা কামনা করেন। তিনি বলেন, ‘আমরা সন্ত্রাস, জঙ্গীবাদ ও মাদক নির্মূল করতে চাই। এ বিষয়ে আমরা দেশবাসীর সহযোগিতা চাই।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, পুলিশ দেশে অনেক কঠিন দায়িত্ব পালন করছে। আমরা চাই দেশে শান্তিপূর্ণ পরিবেশ বজায় থাকুক। দেশের উন্নয়ন যাতে অব্যাহত থাকে সে জন্য আমরা জনগণের সহযোগিতা কামনা করছি।

র‌্যাঙ্ক ব্যাজ পরিয়ে দেয়ার পর প্রধানমন্ত্রী নতুন আইজিপিকে ফুলের তোড়া দিয়ে অভিনন্দন জানান।

নতুন আইজি ড. জাবেদ পাটোয়ারীর দায়িত্ব গ্রহণ ॥ বিশেষ প্রতিনিধি জানান, ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী বাংলাদেশ পুলিশের নবনিযুক্ত ইন্সপেক্টর জেনারেলের (আইজি) দায়িত্ব গ্রহণ করেছেন। বুধবার দুপুরে পুলিশ সদর দফতরে আনুষ্ঠানিকভাবে তার কাছে দায়িত্ব হস্তান্তর করেন সদ্য সাবেক আইজি একেএম শহীদুল হক। পুলিশের নবনিযুক্ত আইজি দায়িত্ব গ্রহণ ও বিদায়ী আইজি দায়িত্ব হস্তান্তর অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন। পুলিশের আইজির দায়িত্ব হস্তান্তর ও গ্রহণ উপলক্ষে বুধবার পুলিশ সদর দফতরে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ পুলিশের উর্ধতন কর্মকর্তারা।

বুধবার ঢাকায় পুলিশ সদর দফতরে বিদায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বিদায়ী আইজি একেএম শহীদুল হক বলেন, গতকাল যে ঘটনা ঘটেছে সামনে আরও ঘটবে। পুলিশকে ধৈর্য ধরে এগুলো মোকাবেলা করতে হবে। জিয়া ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় হাজিরা দিয়ে মঙ্গলবার বিকেলে খালেদা জিয়া গুলশানের বাসায় ফেরার পথে হাইকোর্ট এলাকায় পুলিশের প্রিজনভ্যানে আক্রমণ করে বিএনপির কর্মী পরিচিত আসামি ছিনতাই, পুলিশকে বেধড়ক পিটুনি ও পুলিশের আগ্নেয়াস্ত্র ছিনতাই করে ভাংচুর ঘটনার ইঙ্গিত করে একথা বলেন বিদায়ী আইজি। নবনিযুক্ত আইজি জাবেদ পাটোয়ারীকে উদ্দেশ করে বলেন, নির্বাচনী বছরে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখা এবং নির্বাচনের পরিবেশ বজায় রাখা সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ। অনেক ষড়যন্ত্র হবে, অনেক নাটক হতে পারে এগুলোকে মোকাবেলা করে নির্বাচনের পরিবেশ বজায় রাখা সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ।

 দায়িত্ব হস্তান্তরের মাধ্যমে ৩২ বছরের কর্মজীবনের ইতি টানার বিষয়ে বিদায়ী পুলিশের আইজি একেএম শহীদুল হক বলেন, আইজি হিসেবে দায়িত্ব শেষ হওয়ার মাধ্যমে পূর্ণ সন্তুষ্টি নিয়ে ৩২ বছরের চাকরি জীবনের ইতি টানছি। তিনি বলেন, গত তিন বছর এক মাস আইজিপি হিসেবে দায়িত্ব পালনকালে চেষ্টা করেছি পুলিশের সক্ষমতা উঁচুমাত্রায় নিয়ে যেতে এবং পুলিশকে জনবান্ধব করতে। দায়িত্ব পালনকালে অনেক ষড়যন্ত্র হয়েছে কিন্তু সাহসিকতার সঙ্গে সব সঙ্কট মোকাবেলা করতে সক্ষম হয়েছি। গত তিন বছরে পুলিশের যা অর্জন তার কৃতিত্ব কনস্টেবল থেকে আইজি পর্যন্ত সবার। আর সব ব্যর্থতার দায় আমার। দায়িত্ব পালনকালে পুলিশের সবাইকে হয়ত খুশি করতে পারিনি। একটা প্রশাসনিক কাঠামোতে কাজ করতে হয়েছে


আরও সংবাদ