রবিবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৬:৪৮ পূর্বাহ্ন
শীর্ষ সংবাদ
পঁচাত্তরের খুনিদের দায়মুক্তি অধ্যাদেশ “ধর্ষিত” মামুনের স্ক্রিনশপ জালিয়াতি ফাঁস : ইলিয়াস সহ সুশীলদের কটাক্ষ জাতিসংঘে বঙ্গবন্ধুর ভাষণ : বিশ্ব সভায় বাংলা ভাষার প্রথম আনুষ্ঠানিক প্রতিনিধিত্ব গার্ডিয়ানে প্রকাশিত শেখ হাসিনার নিবন্ধ: ‘আ থার্ড অফ মাই কান্ট্রি ওয়াজ জাস্ট আন্ডারওয়াটার। দ্য ওয়ার্ল্ড মাস্ট অ্যাক্ট অন ক্লাইমেট’ হেফাজতের কর্তৃত্ব যাচ্ছে দেওবন্দের কাফের ঘোষিত জামায়াতের কব্জায় ! অনলাইনে মিলছে টিসিবির পেঁয়াজ আজ টিউলিপ সিদ্দিকের জন্মদিন বাংলাদেশের সঙ্গে রাজনৈতিক ও বাণিজ্যিক সম্পর্ক বাড়াতে চায় যুক্তরাষ্ট্র প্রধানমন্ত্রীকে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষামন্ত্রীর ফোন ফ্রন্টিয়ার, ইমার্জিং ও ডেভেলপড মার্কেট রিটার্নে সবার ওপরে বাংলাদেশ

সড়কে ঝাড়ু হাতে সংবাদ কর্মী ও সংবাদপত্র এজেন্ট

ইবার্তা ডেস্ক
আপডেট : মঙ্গলবার, ১৩ মার্চ, ২০১৮

রানীশংকৈল (ঠাকুগাঁও) প্রতিনিধিঃ গতকাল রবিবার সময় তখন ভর দুপুর হঠাৎ করেই ঠাকুরগায়ের রানীশংকৈল পৌরশহরের পাচপীর নামক কবরস্থান সংলগ্ন মহাসড়কের কিছু অংশ হাতে ঝাড়ু– নিয়ে পরিস্কার করছেন প্যান্ট শাট পরা এক ভদ্র লোক । সবাই অবাক হয়ে যান হঠাৎ হাতে ঝাড়ু– নিয়ে ভদ্র লোকটি কে এবং সড়কে কেন ? এ সময় বিভিন্ন পেশার মানুষের পাশাপাশি এই প্রতিবেদকের নজর আসে ভদ্র লোকের এই কার্যক্রমে।

কাছে গিয়ে কারণ জানতে চাইলে বলেন সড়কে কতগুলো তারকাটা (জুলি) পরে রয়েছে দেখছেন । এ তারকাটা গুলি মোটরসাইকেল সহ অন্যান্য যানবাহনের চরম ক্ষতি করে । প্রত্যাশা অনুযায়ী গন্তব্যস্থলে পৌছাতে চরম ব্যাঘাত সৃষ্টি করে। তারকাটাগুলি গাড়ীর চাকার নিচে ঢুকে গাড়ী পামচার (লিক) হয় । আমি একবার জরুরী ভাবে রোগী দেখতে জেলা সদরে যাওয়ার প্রাক্কালে এই তারকাটা মোটরসাইকেলের চাকাই ঢুকে পামচার হয়ে যাওয়ায় গন্তব্যস্থানে যেতে আমার অনেক সময় বিলম্ব হয়।

এ পথচারীর নাম আবু সালেহ মুসা তিনি হরিপুর উপজেলার বাসিন্দা পেশায় (রানীশংকৈল-হরিপুর) দুই উপজেলার সংবাদপত্র এজেন্ট ও নিজ উপজেলার সংবাদকর্মী ।

তবে মহাসড়কে অজস্র তারকাটা পড়ে থাকতে দেখা যায়।

কারণ হিসেবে জানা যায়, এখানে কোন এক অনুষ্ঠানের তোরণ তৈরী করে ব্যানার সাটানো হয়েছিলো। এখন তোরন খুলে ফেলার পর তারকাটাগুলি মহাসড়কে ফেলে রেখে যায় ডেকোরেটরের লোকজন। আর তারকাটা পড়ে থাকতে দেখে এই ভদ্র লোক নিজ হাতেই ঝাড়ু দিয়ে তারকাটাগুলি সড়ক থেকে সরিয়ে দিচ্ছেলেন । যে কাজটি মুলত ডেকোরেটর কতৃপক্ষের করার দরকার ছিলো।

স্থানীয়রা অভিযোগ করে বলেন, শহরের সড়কে মাঝে মাঝে এমন তোরণ করে আবার খুলে নিয়ে তারকাটা ফেলে রেখে যান ডেকোরেটরের লোকজন । এতে পথচারীরা চরম ভোগান্তিতে পড়ে আবার অনেক সময় দুর্ঘটনার কবলেও পড়ে।


আরও সংবাদ