1. [email protected] : অনলাইন ডেস্ক : অনলাইন ডেস্ক
  2. [email protected] : নিজস্ব প্রতিবেদক : নিজস্ব প্রতিবেদক
  3. [email protected] : নিউজ এডিটর : নিউজ এডিটর
অসচ্ছল শিক্ষার্থীদের পাশে জবি শিক্ষকরা, দিচ্ছেন একদিনের বেতন - ebarta24.com
  1. [email protected] : অনলাইন ডেস্ক : অনলাইন ডেস্ক
  2. [email protected] : নিজস্ব প্রতিবেদক : নিজস্ব প্রতিবেদক
  3. [email protected] : নিউজ এডিটর : নিউজ এডিটর
অসচ্ছল শিক্ষার্থীদের পাশে জবি শিক্ষকরা, দিচ্ছেন একদিনের বেতন - ebarta24.com
শনিবার, ১৬ অক্টোবর ২০২১, ১১:২২ অপরাহ্ন

অসচ্ছল শিক্ষার্থীদের পাশে জবি শিক্ষকরা, দিচ্ছেন একদিনের বেতন

সম্পাদনা:
  • সর্বশেষ আপডেট : বুধবার, ১৫ এপ্রিল, ২০২০

করোনাভাইরাসের কারণে চলা সাধারণ ছুটি ও লকডাউন পরিস্থিতিতে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) যেসব শিক্ষার্থী দুরবস্থায় আছেন, তাদের পাশে দাঁড়ালেন বিশ্ববিদ্যালয়টির শিক্ষকরা।
এসব শিক্ষার্থীকে আর্থিক সহায়তা দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে জবি শিক্ষক সমিতি। এ জন্য শিক্ষকরা তাদের একদিনের বেতন দেবেন ওসব শিক্ষার্থীদের। এপ্রিল মাসের বেতন থেকে তা দেয়া হবে। তবে যেসব শিক্ষক বেতন দিতে অসম্মতি জ্ঞাপন করবেন তাদের বেতন এ খাতে নেয়া হবে না।
জবি শিক্ষক সমিতির পক্ষ থেকে সোমবার (১৩ এপ্রিল) এক বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়।
বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ‘অনেক অসচ্ছল পরিবারের সন্তান আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করে, যারা প্রধানত টিউশনি করে তাদের খরচ নির্বাহ করে। বর্তমান পরিস্থিতিতে তাদের টিউশনি বন্ধ রয়েছে এবং অনেকের মা-বাবার কোনো কাজ না থাকায় তাদের জীবন নির্বাহ করা প্রায় দুঃসাধ্য হয়ে পড়েছে। এ ছাড়া বর্তমান পরিস্থিতিতে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারের আরও কেউ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে পড়লে তা মোকাবিলার জন্য জরুরি ভিত্তিতে অর্থের প্রয়োজন দেখা দিতে পারে।’
‘এমতাবস্থায়, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি কার্যনির্বাহী পরিষদ আপনাদের মূল্যবান মতামত ধারণ করে বিশ্ববিদ্যালয়ের সব সম্মানিত শিক্ষকের এক দিনের মূল বেতনের সমপরিমান অর্থ কর্তন করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে। এ অর্থ এপ্রিল মাসের বেতন থেকে কর্তন করা হবে এবং তা এই বিপদকালীন সময়ে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় পরিবার বিশেষ করে অসচ্ছল ছাত্র-ছাত্রীদের কল্যাণে ব্যয় করা হবে।’
তবে বিজ্ঞপ্তিতে এও উল্লেখ করা হয়, ‘ যেসকল সম্মানিত সহকর্মী বেতন কর্তনে অসম্মতি জ্ঞাপন করেছেন (মোবাইল যোগাযোগে বা সভাপতি বরাবর ইমেইলে) তাদের কোনও প্রকার অর্থ কর্তন করা হবে না। এরপরেও যদি কোনো সহকর্মী তার বেতন হতে অর্থ কর্তনে অনিচ্ছুক হন তবে তার নাম আগামী ২০ এপ্রিলের মধ্যে পরিচালক (অর্থ ও হিসাব) বরাবর জানানোর জন্য অনুরোধ করা যাচ্ছে।’





সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

এ বিভাগের আরও সংবাদ





ebarta24.com © All rights reserved. 2021