শনিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৫:২৯ অপরাহ্ন
শীর্ষ সংবাদ
পঁচাত্তরের খুনিদের দায়মুক্তি অধ্যাদেশ “ধর্ষিত” মামুনের স্ক্রিনশপ জালিয়াতি ফাঁস : ইলিয়াস সহ সুশীলদের কটাক্ষ জাতিসংঘে বঙ্গবন্ধুর ভাষণ : বিশ্ব সভায় বাংলা ভাষার প্রথম আনুষ্ঠানিক প্রতিনিধিত্ব গার্ডিয়ানে প্রকাশিত শেখ হাসিনার নিবন্ধ: ‘আ থার্ড অফ মাই কান্ট্রি ওয়াজ জাস্ট আন্ডারওয়াটার। দ্য ওয়ার্ল্ড মাস্ট অ্যাক্ট অন ক্লাইমেট’ হেফাজতের কর্তৃত্ব যাচ্ছে দেওবন্দের কাফের ঘোষিত জামায়াতের কব্জায় ! অনলাইনে মিলছে টিসিবির পেঁয়াজ আজ টিউলিপ সিদ্দিকের জন্মদিন বাংলাদেশের সঙ্গে রাজনৈতিক ও বাণিজ্যিক সম্পর্ক বাড়াতে চায় যুক্তরাষ্ট্র প্রধানমন্ত্রীকে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষামন্ত্রীর ফোন ফ্রন্টিয়ার, ইমার্জিং ও ডেভেলপড মার্কেট রিটার্নে সবার ওপরে বাংলাদেশ

কুয়েত মৈত্রী হাসপাতালে নিয়ে কথিত বিরোধীদের গুজব বনাম বাস্তবতা ও নৈতিকতা

ইবার্তা ডেস্ক
আপডেট : রবিবার, ১৯ এপ্রিল, ২০২০

গোলাম মর্তুজার মতো যেসব সাংবাদিকদের সত্যান্বেষী হিসেবে ভাবমূর্তি ছিল, যাদের কথাকেই মানুষ কোনো গণমাধ্যমের সূত্র অপেক্ষা বেশি গুরুত্ব দিতো, তারা আজ বিরোধিতার জন্য সরকারের বিরোধিতা করে গত কয়েক বছরে নিজেদের নূন্যতম গ্রহণযোগ্যতাও হারিয়ে ফেলেছে। এখন তাদের সত্যি কথাও কেউ বিশ্বাস করার আগে যাচাই করার তাগিদ অনুভব করে। এ ধারায় আগামীতে হয়তো সেটিও করার প্রয়োজন বোধ করবে না।

বাংলাদেশে করোনা ভাইরাস আক্রান্তদের চিকিৎসার জন্য শুরুতেই কুয়েত-বাংলাদেশ মৈত্রী হাসপাতালকে প্রস্তুত করা হয় ৷ প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে আক্রান্তদের সেবায় অক্লান্তভাবে কাজ করছেন কুয়েত মৈত্রী হাসপাতালের চিকিৎসক ও নার্সরা। প্রয়োজনীয় চিকিৎসা সরঞ্জাম, বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক, পিপিই ও এন নাইনটি ফাইভ মাস্কসহ সকল ব্যবস্থাই রয়েছে হাসপাতালটিতে ৷

সম্প্রতি এই হাসপাতালের খাবার ব্যবস্থা নিয়ে নার্স ও কর্মীদের অসন্তুষ্টির কথা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচার করছে বেশ কিছু অসাধু ব্যক্তি। এদের মধ্যে গোলাম সাংবাদিক মোর্তাজা একজন। সরকারবিরোধী বা অহেতুক যেকোনো সমালোচনায় তার সবসময়ই সরব উপস্থিতি এবং বিচরণ পরিলক্ষিত। তিনি তার ফেইসবুক আইডি থেকে কুয়েত-বাংলাদেশ মৈত্রী হাসপাতালের খাবার ব্যবস্থাপনা ও মান নিয়ে একটি বানোয়াট ও মনগড়া স্ট্যাটাস দেন। যেখানে তিনি উল্লেখ করেন হাসপাতালের নার্সরা সময়মত খাবার পাচ্ছেন না। তার এই তথ্য সম্পূর্ণ ভুয়া ও ভিত্তিহীন বলে দাবি করেন হাসপাতালের কর্মীরা। তারা জানায় খাবার নিয়ে কোনো সমস্যা নেই বরং কতৃপক্ষ তাদের পর্যাপ্ত সুযোগ সুবিধা প্রদান করে যাচ্ছে এই মহামারীর সময়।

এদিকে হাসপাতালের খাবারের মানসম্মত নিরাপদ খাবারের পরিবেশন ও এর বৈচিত্র্য বোঝাতে ছবি ও ভিডিও শেয়ার করে নিজের ফেসবুকে খাবারের মানের আসল চিত্র ফুটিয়ে তোলার পাশাপাশি এর প্রশংসাও করেছেন আইনজীবী আহসান ভূঁইয়া।

গোলাম মোর্তাজার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচারিত এই অপপ্রচার বা মিথ্যা তথ্য আমলে নেয়া বুদ্ধিমানের কাজ নয়। দেশের মানুষের মাঝে বিভ্রান্তিকর তথ্য দিয়ে এই ধরনের হলুদ সাংবাদিক নিজ স্বার্থ হাসিলের পাঁয়তারা করছে। বিএনপি জামায়াতের এজেন্ট হিসেবে সরকারের ভাবমূর্তি নষ্ট করতেই করোনার এই পরিস্থিতিকে কাজে লাগিয়ে অপপ্রচার চালাচ্ছে গোলাম মোর্তোজা। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সকল গুজব এড়িয়ে চলুন। নিজে ভালো থাকুন, অপরকে ভালো রাখুন।


আরও সংবাদ