শনিবার, ১৭ এপ্রিল ২০২১, ০৮:৩৬ অপরাহ্ন
শীর্ষ সংবাদ
মসজিদের দানের টাকা ভাগাভাগি নিয়ে মামুনুল অনুসারী হেফাজতের দুই গ্রুপের সংঘর্ষ, নিহত ১ হেফাজতভক্ত সাম্প্রদায়িক অনুপ্রবেশকারীদের চিহ্নিত করছে ছাত্রলীগ : পাওয়া মাত্রই বহিষ্কার মুজিবনগর দিবসের সুবর্ণজয়ন্তীতে ‘সোনার বাংলার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র প্রতিহত করতে’ প্রধানমন্ত্রীর দৃঢ়প্রতিজ্ঞা বিএনপি কেন পালন করে না মুজিবনগর দিবস? মামুনুল কাণ্ডে টালমাটাল হেফাজত যেকোনো মুহূর্তে গ্রেফতার মামুনুল কিংবদন্তী কবরীর জীবনাবসান চট্টগ্রামের ৩০০ পরিবার পেল প্রধানমন্ত্রীর উপহার শিবিরের স্টাইলে কৃষক লীগ নেতার পায়ের রগ কেটে দিল ‘হেফাজত’ করোনা রোগীদের শয্যা প্রাপ্তিতে ছাত্রলীগের মানবিক টিম

ছাত্র বলৎকারে হেফাজত নেতা কারাগারে, জব্দ ফোনেও মিললো বলৎকারের ছবি

সুভাষ হিকমত
আপডেট : শুক্রবার, ৯ এপ্রিল, ২০২১

সাতক্ষীরার কালীগঞ্জে এক ছাত্রকে বলৎকারের ছবি তুলে ফেসবুকে ছড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগে করা মামলায় মাদ্রাসাশিক্ষক আনোয়ারুল ইসলামকে (৩৩) গতকাল বৃহস্পতিবার কারাগারে পাঠানো হয়েছে। গতকাল বুধবার রাতে উপজেলার কফিল উদ্দীন হাফিজিয়া মাদ্রাসায় অভিযান চালিয়ে তাঁকে গ্রেপ্তার করে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ। তিনি স্থানীয় হেফাজত নেতা বলে জানা যায়।

পুলিশ জানায়, ৩ থেকে ৪ দিন আগে মাদ্রাসার ১৬ বছরের এক ছাত্রকে আনোয়ারুলের বলৎকারের ছবি ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ে। বিষয়টি পুলিশ সুপারসহ (এসপি) ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের নজরে আসে। এসপির নির্দেশে বিষয়টি তদন্ত করতে জেলা গোয়েন্দা পুলিশের পরিদর্শক ইয়াছিন আলম চৌধুরীর নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল অভিযানে নামে। ওই হেফাজত নেতাকে আটক করা হয়। এ সময় তাঁর কাছ থেকে একটি মুঠোফোন ও দুটি সিম কার্ড জব্দ করা হয়। ওই মুঠোফোনে এই কিশোরসহ আরও কয়েক শিশু-কিশোরকে তার বলৎকারের ছবি পাওয়া গেছে।

 

পরিদর্শক ইয়াছিন আলম চৌধুরী বলেন, এ ঘটনায় জেলা গোয়েন্দা পুলিশের উপপরিদর্শক হুমায়ন কবির বাদী হয়ে পর্নোগ্রাফি নিয়ন্ত্রণ আইনে কালীগঞ্জ থানায় একটি মামলা করেছেন। ওই মামলায় আনোয়ারুল ইসলামকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে। এই হেফাজত নেতা দীর্ঘদিন ধরে ছাত্রদের বলৎকার করে ছবি তুলে রাখেন। তাদের ভয়ভীতি দেখিয়ে আবারও বলৎকার করতেন তিনি। তাকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।


আরও সংবাদ