মঙ্গলবার, ১৮ মে ২০২১, ০৫:৩৬ অপরাহ্ন
শীর্ষ সংবাদ
৫০০ গৃহকর্মী ও ৮১ তৃতীয় লিঙ্গের মানুষ পেলেন প্রধানমন্ত্রীর উপহার ৭ মে – শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন : গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার দিবস যে যেখানে আছে সেখানেই ঈদ : ‘নবসৃষ্ট অবকাঠামো ও জলযান’ উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী জাহাঙ্গীরনগরের দেয়ালগুলো যেভাবে রঙিন হলো সংসদ ভবনে হামলার পরিকল্পনায় গ্রেফতার ২ : নেপথ্যে হেফাজত অনিয়মের বিরুদ্ধে সাবধান করলেন প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়ার আল্টিমেটামের পরেই হেফাজতের তাণ্ডব সারদেশে প্রধানমন্ত্রীর উপহার পেলেন শ্রমিক, ইমাম, ভ্যানচলক : আশ্রয়হীদের জন্য সরকারি ঘর উগ্রতার দায়ে স্থায়ীভাবে বন্ধ করে দেওয়া হল কঙ্গনার টুইটার অ্যাকাউন্ট বিচ্ছেদের আগেই সম্পত্তি ভাগাভাগির চুক্তি !

হেফাজতকে ‘জঙ্গি সংগঠন’ ঘোষণার দাবিতে স্মারকলিপি

সুভাষ হিকমত
আপডেট : শনিবার, ১০ এপ্রিল, ২০২১

হেফাজতে ইসলামকে জঙ্গি সংগঠন ঘোষণার দাবি জানিয়ে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিংকেনের কাছে স্মারকলিপি দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থিত মুক্তিযুদ্ধের চেতনার ধারক বাংলাদেশের ছয় সংগঠন।

সংগঠনগুলো হলো- একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি নিউইয়র্ক শাখা, যুক্তরাষ্ট্র বঙ্গবন্ধু পরিষদ, ইউএসএ কমিটি ফর সেকুলার অ্যান্ড ডেমোক্রেটিক বাংলাদেশ, বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন যুক্তরাষ্ট্র শাখা, সেক্টর কমান্ডারস ফোরাম যুক্তরাষ্ট্র ও বাংলাদেশ লিবারেশন ওয়ার ভেটারেনস যুক্তরাষ্ট্র।

স্মারকলিপিতে বলা হয়, হেফাজতে ইসলামের নেতৃবৃন্দ এই সংগঠনকে একটি ধর্মীয় সংগঠন দাবি করে, কিন্তু তাদের সব কর্মকাণ্ড জঙ্গি সংগঠন তালেবান এবং আইসিস’র মত। হেফাজতে ইসলাম ধর্মের নাম করে জঙ্গি কর্মকাণ্ডের মাধ্যমে বাংলাদেশের রাজনীতিতে নিজেদের অবস্থান সুদৃঢ় করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

স্মারকলিপিতে আরও বলা হয়, হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশে নারীবিরোধী, সংখ্যালঘুবিরোধী ও স্বাধীনতাবিরোধী সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড চালিয়ে বাংলাদেশকে একটি ইসলামিক রাষ্ট্র বানানোর গভীর ষড়যন্ত্রে লিপ্ত।

 

সম্প্রতি বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীতে দেশব্যাপী, বিশেষ করে ব্রাহ্মণবাড়িয়া এবং সিলেটের সুনামগঞ্জের শাল্লায় সংখ্যালঘুদের ওপর সন্ত্রাসী হামলার বিস্তারিত স্মারকলিপিতে তুলে ধরা হয়।

সংগঠনগুলোর পক্ষ থেকে যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে জানানো হয়, হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ মৌলবাদী সংগঠনটিকে যদি জঙ্গি সংগঠন ঘোষণা দিয়ে দ্রুত নিষিদ্ধ করার চেষ্টা না করা হয়, তাহলে এই সংগঠনটি ধর্মের আড়ালে আরও ভয়াবহ হয়ে উঠবে। এটা শুধু বাংলাদেশের জন্য নয় বরং দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়াসহ যুক্তরাষ্ট্রের জন্যও বিপদজনক।

ছয়টি সংগঠনের পক্ষে স্মারকলিপি পাঠান একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির কেন্দ্রীয় উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য, বিশিষ্ট বিজ্ঞানী বীর মুক্তিযোদ্ধা ড. নুরুন নবী।


আরও সংবাদ