মঙ্গলবার, ১৮ মে ২০২১, ০৪:৩৫ অপরাহ্ন
শীর্ষ সংবাদ
৫০০ গৃহকর্মী ও ৮১ তৃতীয় লিঙ্গের মানুষ পেলেন প্রধানমন্ত্রীর উপহার ৭ মে – শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন : গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার দিবস যে যেখানে আছে সেখানেই ঈদ : ‘নবসৃষ্ট অবকাঠামো ও জলযান’ উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী জাহাঙ্গীরনগরের দেয়ালগুলো যেভাবে রঙিন হলো সংসদ ভবনে হামলার পরিকল্পনায় গ্রেফতার ২ : নেপথ্যে হেফাজত অনিয়মের বিরুদ্ধে সাবধান করলেন প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়ার আল্টিমেটামের পরেই হেফাজতের তাণ্ডব সারদেশে প্রধানমন্ত্রীর উপহার পেলেন শ্রমিক, ইমাম, ভ্যানচলক : আশ্রয়হীদের জন্য সরকারি ঘর উগ্রতার দায়ে স্থায়ীভাবে বন্ধ করে দেওয়া হল কঙ্গনার টুইটার অ্যাকাউন্ট বিচ্ছেদের আগেই সম্পত্তি ভাগাভাগির চুক্তি !

“যেকোনো চ্যালেঞ্জ মোকাবেলার জন্য প্রস্তুতি নিতে হবে”

সুভাষ হিকমত
আপডেট : বুধবার, ২৮ এপ্রিল, ২০২১

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জনাব ওবায়দুল কাদের এমপি  আওয়ামী লীগের নেতা কর্মীকে যেকোনো কঠিন পরিস্থিতি মোকাবেলার জন্য প্রস্তুত থাকতে বলেছেন। তিনি বলেন, আওয়ামী লীগের সকল পর্যায়ের নেতাকর্মীকে জাতীয় দুর্যোগে মানুষের পাশে দাঁড়ানোর জন্য বঙ্গবন্ধু কন্যা রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনার নির্দেশ রয়েছে। এই রাষ্ট্র সকল দুর্যোগ এখনো সফলভাবে মোকাবেলা করছে, কারণ জননেত্রী শেখ হাসিনা তাঁর সকল মেধা, সততা, সাহস, পারদর্শিতা ও কঠোর পরিশ্রম দিয়ে জাতির পাশে অতন্ত্র প্রহরীর মতো দাঁড়িয়ে আছেন। ওবায়দুল কাদের বলেন, বর্তমানে আমাদের সামনে দুটি চ্যালেঞ্জ। এক, করোনা মহামারীর দ্বিতীয় তরঙ্গ কার্যকরভাবে মোকাবেলা করা এবং দুই, সাম্প্রদায়িক ও ধর্মান্ধ গোষ্ঠীসহ রাষ্ট্রবিরোধী সকল গোষ্ঠীর ষড়যন্ত্র ও তথ্য সন্ত্রাস মোকাবেলা করা।

এ লক্ষ্যে তিনি নেতা কর্মীদের প্রস্তুত থাকার নির্দেশ প্রদান করেন। তিনি বলেন, এর জন্য দরকার কর্ম দক্ষতা, কমিটমেন্ট আর কঠোর পরিশ্রম। রাষ্ট্র, সরকার ও আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে যে তথ্য সন্ত্রাস চলসে, সেটি তিনি সর্বাত্মকভাবে মোকাবেলার আহ্বান জানান তথ্য ও গবেষণা উপকমিটির সদস্যগণকে।
গতকাল মঙ্গলবার রাতে অনুষ্ঠিত বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা উপকমিটির ভার্চুয়াল সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে ওবায়দুল কাদের এসব কথা বলেন।

 

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য ড۔ মশিউর রহমানের সভাপতিত্বে উপকমিটির ভার্চুয়াল সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন তথ্য ও গবেষণা উপকমিটির সদস্য সচিব ড۔ সেলিম মাহমুদ। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন প্রফেসর মাহফুজুর রহমান, ড۔ শাহজাহান মাহমুদ, জনাব সাজ্জাদুল হাসান, প্রফেসর হেলালুদ্দীন নিজামী, প্রফেসর ড۔ বিশ্বজিৎ চন্দ, ব্রিগেডিয়ার ডা۔ মোঃ শাহজাহান, নওশের রহমান, প্রফেসর ড۔ অসীম সরকার, ডা۔ জাহানারা আরজু, ড۔ মোহাম্মদ শামসুর রহমান, কৃষিবিদ বদিউজ্জামান বাদশা, আমেনা কোহিনুর, আতাউল মাহমুদ, সৈয়দ আবু তোহা, অ্যাডভোকেট আরেফা পারভীন তাপসী, রায়হান কবির, ফাহিম শাহরিয়ার, রকিবুদ্দিন আহমেদ ঢালী, মাসুদ পারভেজ খান ইমরান, রাজীব হোসেন প্রমুখ।


আরও সংবাদ