মঙ্গলবার, ১৮ মে ২০২১, ০৪:৫৪ অপরাহ্ন
শীর্ষ সংবাদ
৫০০ গৃহকর্মী ও ৮১ তৃতীয় লিঙ্গের মানুষ পেলেন প্রধানমন্ত্রীর উপহার ৭ মে – শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন : গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার দিবস যে যেখানে আছে সেখানেই ঈদ : ‘নবসৃষ্ট অবকাঠামো ও জলযান’ উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী জাহাঙ্গীরনগরের দেয়ালগুলো যেভাবে রঙিন হলো সংসদ ভবনে হামলার পরিকল্পনায় গ্রেফতার ২ : নেপথ্যে হেফাজত অনিয়মের বিরুদ্ধে সাবধান করলেন প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়ার আল্টিমেটামের পরেই হেফাজতের তাণ্ডব সারদেশে প্রধানমন্ত্রীর উপহার পেলেন শ্রমিক, ইমাম, ভ্যানচলক : আশ্রয়হীদের জন্য সরকারি ঘর উগ্রতার দায়ে স্থায়ীভাবে বন্ধ করে দেওয়া হল কঙ্গনার টুইটার অ্যাকাউন্ট বিচ্ছেদের আগেই সম্পত্তি ভাগাভাগির চুক্তি !

পাকিস্তানে সেনাবাহিনী সবচেয়ে বড় ভূমিদস্যু : লাহোর হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি

অশোক আখন্দ
আপডেট : বৃহস্পতিবার, ২৯ এপ্রিল, ২০২১

অবৈধ ভূমি দখলে জড়িত থাকার অভিযোগে পাকিস্তানের প্রতিরক্ষা আবাসন কর্তৃপক্ষের (ডিএইচএ) ব্যাপক সমালোচনা করেছেন লাহোরের হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি মোহাম্মদ কাসিম খান। সেনাবাহিনী দেশটির সবচেয়ে বড় ‘ভূমি দখলকারী হওয়ায়’ আফসোসের কথাও জানান তিনি। -খবর ডন অনলাইনের

ইভাকিউই ট্রাস্ট প্রোপার্টি বোর্ডের (ইটিপিবি) কাছ থেকে বৈধভাবে জমি ইজারা নেওয়া তিন ব্যক্তি ডিএইচএ’র বিরুদ্ধে আদালতে রিট আবেদন করেন। তাদের বৈধ জমিতে যাতে সেনাবাহিনী হস্তক্ষেপ না করে, আদালতের কাছে সেই নিশ্চয়তা দাবি করেন। এমনকি হাইকোর্টের জমিও সেনাবাহিনী দখলে নিয়েছে বলে জানান কাসিম খান। এ নিয়ে সেনাবাহিনীর প্রধানকে একটি চিঠি লিখতে লাহোর হাইকোর্টের রেজিস্ট্রারকে নির্দেশ দিয়েছেন প্রধান বিচারপতি। তবে হাইকোর্টের জমিদখল নিয়ে ডিএইচএ’র কাউন্সেল আলতাফুর রহমান কিছু জানেন না বলে দাবি করেন।

প্রধানবিচারপতি বলেন, এই ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করতে লাহোরের কোর্পস কমান্ডারকে তলব করা হতে পারে। তিনি আরও বলেন, সেনাবাহিনীর উর্দি মানুষের সেবার জন্য, রাজা হিসেবে শাসন করার জন্য না।
সেনাবাহিনী নিয়ে ন্যূনতম ভুল কিছু বলেননি জানিয়ে কাসিম খান বলেন, আল্লাহ আমাকে সত্য বলার সাহস দিয়েছেন। সেনাবাহিনী যেভাবে সাধারণ মানুষের জমি দখল করছে, তা ভূমিদস্যুতা ছাড়া আর কিছু না।


আরও সংবাদ