মঙ্গলবার, ১৮ মে ২০২১, ০৫:৫৮ অপরাহ্ন
শীর্ষ সংবাদ
৫০০ গৃহকর্মী ও ৮১ তৃতীয় লিঙ্গের মানুষ পেলেন প্রধানমন্ত্রীর উপহার ৭ মে – শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন : গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার দিবস যে যেখানে আছে সেখানেই ঈদ : ‘নবসৃষ্ট অবকাঠামো ও জলযান’ উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী জাহাঙ্গীরনগরের দেয়ালগুলো যেভাবে রঙিন হলো সংসদ ভবনে হামলার পরিকল্পনায় গ্রেফতার ২ : নেপথ্যে হেফাজত অনিয়মের বিরুদ্ধে সাবধান করলেন প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়ার আল্টিমেটামের পরেই হেফাজতের তাণ্ডব সারদেশে প্রধানমন্ত্রীর উপহার পেলেন শ্রমিক, ইমাম, ভ্যানচলক : আশ্রয়হীদের জন্য সরকারি ঘর উগ্রতার দায়ে স্থায়ীভাবে বন্ধ করে দেওয়া হল কঙ্গনার টুইটার অ্যাকাউন্ট বিচ্ছেদের আগেই সম্পত্তি ভাগাভাগির চুক্তি !

কারখানা বন্ধ রেখে হলেও দেশকে অক্সিজেন দেবে আবুল খায়ের গ্রুপ

নাজিম আজাদ
আপডেট : শুক্রবার, ৩০ এপ্রিল, ২০২১

এক সপ্তাহ ধরে বন্ধ রয়েছে ভারত থেকে অক্সিজেন সরবরাহ। দেশে অক্সিজেন সরবরাহে টানটান অবস্থা। এমন মূহুর্তে অক্সিজেন সরবরাহের ঘোষণা দিয়েছে আবুল খায়ের শিল্প গ্রুপ। প্রতিষ্ঠানটি তাদের নিজস্ব প্ল্যান্ট থেকে প্রতিদিন ২০ টন অক্সিজেন সরবরাহের আশ্বাস দিয়েছে। পাশাপাশি দেশের প্রয়োজনে অন্যান্য কারখানা বন্ধ রেখে অক্সিজেন উৎপাদন করা হবে।

গত বুধবার অক্সিজেন সরবরাহ কার্যক্রমের উদ্বোধন উপলক্ষ্যে চট্টগ্রামের একেএস প্লান্টে একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। তখন আবুল খায়ের গ্রুপের অক্সিজেন প্লান্টের সিইও মুহামম্দ আবদুল্লাহ বলেন, ‘২৬০ টন সহজলভ্য আছে তার মধ্যে আমরা জরুরি ভিত্তিতে ২০টন সহজলভ্য করেছি। বাংলাদেশে প্রতিদিন ২০০ টনের মতো চাহিদা রয়েছে। আমাদের ক্যাপাসিটি দিনে ২০৭টন। সে হিসেবে আমাদের চাহিদা পুরণের সামর্থ রয়েছে।’

আবুল খায়ের গ্রুপের সিনিয়র এসিস্ট্যান্ট ম্যানেজার মো. শামসুদ্দোহা বলেন, আমাদের প্রতিদিন ১৫ থেকে ২০টন লিকুইড প্রোডাকশন আছে তা বিভিন্ন হাসপাতালে সরবরাহ করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

আবুল খায়ের স্টিল লিমিটেডের মানবসম্পদ বিভাগের মো. ইমরুল কাদের ভূঁইয়া বলেন, আমরা মজুদ ও সরবরাহ বজায় রাখবো। দেশের যে ক্রান্তিকাল যাতে তা উত্তরণ করা যায় সেই চেষ্টা করছি। দেশের মানুষের জানমাল রক্ষার জন্য আমরা প্রয়োজনে শিল্প প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে অক্সিজেনের পুরোটা মেডিকেলের দিকে সাপ্লাই দিব।’

২০২০ সালে আবুল খায়ের গ্রুপ ১০ হাজার অক্সিজেন সিলিন্ডার রিফিলের পাশাপাশি ৫ হাজার সিলিন্ডার বীনা মূল্যে বিতরণ করে। এছাড়া ২০টি হাসপাতালে কেন্দ্রীয় অক্সিজেন সরবরাহের ব্যবস্থা করে দেয় গ্রুপটি।


আরও সংবাদ