1. [email protected] : ডেস্ক রিপোর্ট : ডেস্ক রিপোর্ট
  2. [email protected] : অনলাইন ডেস্ক : অনলাইন ডেস্ক
  3. [email protected] : নিজস্ব প্রতিবেদক : নিজস্ব প্রতিবেদক
  4. [email protected] : নিউজ এডিটর : নিউজ এডিটর
আজ থেকে বাজারে পরিবেশবান্ধব ই-সিম - ebarta24.com
  1. [email protected] : ডেস্ক রিপোর্ট : ডেস্ক রিপোর্ট
  2. [email protected] : অনলাইন ডেস্ক : অনলাইন ডেস্ক
  3. [email protected] : নিজস্ব প্রতিবেদক : নিজস্ব প্রতিবেদক
  4. [email protected] : নিউজ এডিটর : নিউজ এডিটর
আজ থেকে বাজারে পরিবেশবান্ধব ই-সিম - ebarta24.com
শনিবার, ২১ মে ২০২২, ০৩:৩৯ অপরাহ্ন

আজ থেকে বাজারে পরিবেশবান্ধব ই-সিম

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • সর্বশেষ আপডেট : সোমবার, ২৫ এপ্রিল, ২০২২

শেষ পর্যন্ত পরিবেশবান্ধব ই-সিমের দুনিয়ায় প্রবেশ করল বাংলাদেশ। টেক সার্ভিস লিডার ও ডিজিটাল বাংলাদেশের কানেক্টিভিটি পার্টনার গ্রামীণফোন দেশে প্রথমবারের মতো এই সিম চালু করছে। ই-সিম পাওয়া যাচ্ছে আজ সোমবার (২৫ এপ্রিল) থেকে।

ই-সিমের ক্ষেত্রে নতুন সংযোগের জন্য দিতে হবে ২০০ টাকা। আর প্লাস্টিক সিম থেকে ই-সিমে রিপ্লেসমেন্টের জন্য লাগবে ৯৯ টাকা।

এর আগে গত ৭ মার্চ থেকে ই-সিম বাজারে পাওয়া যাবে বলে ঘোষণা দিয়েছিল গ্রামীণফোন। কিন্তু ই-সিমের সংযোগ মূল্য কত হবে তা নিয়ে জটিলতার কারণে বাংলাদেশ টেলিকমিউনিকেশন রেগুলেটরি কমিশন-বিটিআরসি চূড়ান্ত অনুমোদন না দেওয়ায় সে সময় চালু করতে পারেনি প্রতিষ্ঠানটি।

এখন জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) ই-সিমের ক্ষেত্রে নতুন সংযোগের মূল্য ২০০ টাকা কর (ট্যাক্স) নির্ধারণ করে দিয়েছে। গত ২১ এপ্রিল এনবিআর এ সংক্রান্ত একটি চিঠি বিটিআরসি ও গ্রামীণফোন কর্তৃপক্ষের কাছে পাঠিয়েছে। তাতে বলা হয়েছে, নিয়মিত সিম কার্ডের মতো প্রতিটি ই-সিমের জন্য ২০০ টাকা ভ্যাট হিসাবে দিতে হবে।

এই শর্ত মেনেই সোমবার থেকে ই-সিম বিক্রি শুরু করেছে গ্রামীণফোন।

ই-সিম হচ্ছে সিম কার্ড ছাড়াই মোবাইল নেটওয়ার্ক ব্যবহারের ডিজিটাল পদ্ধতি। এই সিমের সুবিধা হচ্ছে, নিরাপদ-হারানোর ভয় নেই এবং খুব সহজে ইনস্টল করা যায়।

রোববার দেশের সবচেয়ে বড় মোবাইল ফোন অপারেটরটির এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, ২৫ এপ্রিল সোমবার থেকে নির্দিষ্ট গ্রামীণফোন সেন্টার থেকে ই-সিম নিতে পারবেন গ্রাহকরা। এর আগে মার্চের শুরুতে ই-সিম নিয়ে আসবে বলে জানিয়েছিলো গ্রামীণফোন। কিন্তু প্রতিষ্ঠানটি প্রযুক্তিগতভাবে প্রস্তুত থাকলেও অনিবার্য কারণবশত পিছিয়ে যায় ই-সিমের উন্মোচন।

‘বিশ্বজুড়েই যুগান্তকারী ডিজিটাল রূপান্তরসহ পরিবেশগত সুবিধা প্রদানে প্রভাবক হিসেবে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছে ই-সিম (এমবেডেড সিম)। অত্যাধুনিক কানেক্টিভিটির ভবিষ্যতমুখী বিভিন্ন ফিচারসহ, ই-সিম ডিজিটাল যুগে নানা সম্ভাবনা উন্মোচন কাজ করবে।’

‘ফোরজি ই-সিম: পরিবেশ-বান্ধব ডিজিটাল সিমের এখনই সময়’স্লোগানে গ্রামীণফোন গ্রাহকরা নিজেদের ক্ষমতায়নে ই-সিম সমর্থন করে এমন ডিভাইসে প্লাস্টিক সিম কার্ড ছাড়াই কানেক্টিভিটির পূর্ণ সুবিধা উপভোগ করবেন। গ্রামীণফোন বিশ্বাস করে প্রযুক্তিগত অগ্রগতি ও উদ্ভাবনকে অবশ্যই জলবায়ুর সংক্রান্ত বিষয়কে প্রাধান্য দিতে হবে এবং এক্ষেত্রে পৃথিবীকে রক্ষা করতে প্রতিটি পদক্ষেপই গুরুত্বপূর্ণ। জলবায়ু পরিবর্তনের বিষয়টিকে বিবেচনায় নিয়ে পরিবেশবান্ধব বিষয়গুলোর ওপর সবসময়ই গুরুত্বারোপ করে গ্রামীণফোন।

ধারণা করা হচ্ছে, ২০২৫ সালের মধ্যে বিশ্বজুড়ে ই-সিমের ব্যবহার বেড়ে হবে ৩.৪ বিলিয়ন। এ কার্যক্রমটি দায়িত্বশীলভাবে পরিচালনার মাধ্যমে প্রযুক্তি খাতের অগ্রণী হিসেবে বাংলাদেশের নির্ধারণ করা ইএসজি লক্ষ্যমাত্রায় পৌঁছাতে এ পথচালায় যুক্ত হযেছে গ্রামীণফোন।

কিভাবে পাওয়া যাবে ই-সিম

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, গ্রামীণফোনের নতুন ই-সিম সংযোগ পেতে হলে ক্রেতাদের ই-সিম সমর্থন করে এমন ডিভাইস নিয়ে গ্রামীণফোনের এক্সপেরিয়েন্স সেন্টার (ঢাকা ও চট্টগ্রাম) এবং নির্ধারিত গ্রামীণফোন সেন্টারে গিয়ে বায়োমেট্রিক নিবন্ধন প্রক্রিয়া শেষ করে ই-সিমের জন্য অনুরোধ করতে হবে। সিম কেনার প্রক্রিয়া অনুসরণ করে, গ্রামীণফোনের অনলাইন শপের মাধ্যমেও ই-সিমের জন্য অনুরোধ করা যাবে।

আগ্রহী ক্রেতারা জিপি হা্উস এক্সপেরিয়েন্স সেন্টার, জিপিসি লাউঞ্জ গুলশান, জিপিসি লাউঞ্জ জিইসি-চট্টগ্রাম, জিপি অনলাইন শপ, মতিঝিল জিপিসি, ফার্মগেট জিপিসি, বসুন্ধরা সিটি জিপিসি, ঢাকা বিমানবন্দর জিপিসি, উত্তরা জসিমউদ্দীন রোড জিপিসি, সীমান্ত স্কয়ার জিপিসি, ধানমন্ডি ও সিলেট করিমুল্লাহ মার্কেট জিপিসি থেকে ই-সিম সংযোগ নিতে পারবেন।

ই-সিমের ক্ষেত্রে নতুন সংযোগের মূল্য ২০০ টাকা এবং প্লাস্টিক সিম থেকে ই-সিম কিংবা ই-সিম থেকে ই-সিমে রিপ্লেসমেন্ট ফি ৯৯ টাকা।

ই-সিম সমর্থন করে এমন ডিভাইসে থাকা ক্যামেরা দিয়ে কিউআর কোড স্ক্যান করে ই-সিম সক্রিয় করতে ইন্টারনেট সংযোগ (মোবাইল ডাটা অথবা ওয়াইফাই) চালু করতে হবে। এর ফলে, প্রচলিত সিম কার্ডে যে ঝামেলা রয়েছে তা দূর হবে।

বহু নেটওয়ার্ক এবং নম্বর একটি ই-সিমে সংযুক্ত করা যাবে।তবে এটি নির্ভর করবে হ্যান্ডসেটের ওপর। এর মাধ্যমে বিশ্বজুড়েই নিরবচ্ছিন্ন কানেক্টিভিটি সেবা নিশ্চিত হবে। গ্রাহকরা ই-সিমে একাধিক নম্বর ব্যবহার করতে পারবেন, যা ভ্রমণকারীদের জন্য আরো স্বাচ্ছন্দ্য নিয়ে আসবে। সল্যুশনটি যেহেতু ডিভাইসের সাথে এমবেড করা থাকবে, তাই এক্ষেত্রে ম্যানুয়াল পদ্ধতিতে কিছু করার প্রয়োজন হবে না। ব্যবহারকারীদের তথ্য ডিজিটাল ফরম্যাটে স্টোর করা থাকবে বলে ই-সিম উন্নত নিরাপত্তা প্রদান করেবে বলে বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

এ বিভাগের আরও সংবাদ

ebarta24.com © All rights reserved. 2021