শনিবার, ১৯ জুন ২০২১, ০৩:৩১ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ সংবাদ

কি ছিল রোজিনার বিরুদ্ধে করা পুলিশের এজাহারে? চলুন দেখে আসি বিস্তারিত

ইবার্তা সম্পাদনা পর্ষদ
আপডেট : বৃহস্পতিবার, ২৭ মে, ২০২১

সচিবালয় থেকে রাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ন তথ্যাদি চুরি করার সময় হাতে নাতে ধরা পড়া প্রথম আলোর সিনিয়র সাংবাদিক রোজিনা ইসলামের বিরুদ্ধে পুলেশের এজহারের কপি আমাদের হাতে এসেছে। এজাহারে দেখা যায় তিনি বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ন তথ্য চুরির চেষ্টা করেছেন। তথ্য পাচারে তাঁর বিরুদ্ধে এর আগেও অভিযোগ পাওয়া গেছে বলে জানান পুলিশ।

 

আসুন দেখে নেই এজহারে জব্দ তালিকায় কি ছিলোঃ

জব্দ তালিকায় চারটি নথির কথা উল্লেখ করা হয়েছে। এর মধ্যে প্রথমটি হচ্ছে জেনেভাস্থ বাংলাদেশ স্থায়ী মিশনের পাঠানো দুই পাতার একটি চিঠি।

দ্বিতীয়টি কোভিড-১৯ মহামারি মোকাবিলায় ব্যবহৃত চিকিৎসা সামগ্রী কেনার প্রস্তাব অনুমোদনের জন্য সেন্ট্রাল মেডিকেল স্টোরস ডিপোর (সিএমএসডি) পরিচালকের ৫৬ পাতার একটি প্রস্তাবনা। এ চিঠি সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটিতে পাঠানো হচ্ছিল।

জব্দ তালিকার তৃতীয় স্থানে আছে সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির জন্য তৈরি করা সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত দুই পাতার একটি সারসংক্ষেপ।

চতুর্থ ও শেষ নথি হিসেবে আছে করোনাভাইরাসের টিকা সংগ্রহ ও বিতরণ সংক্রান্ত আন্তঃমন্ত্রণালয় পরামর্শক কমিটির অনুমোদন বিষয়ক দুই পাতার একটি ফটোকপি।

 

উল্লেখ্য, রোজিনা ইসলামের বিরুদ্ধে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের উপ-সচিব মো. শিব্বির আহমেদ ওসমানী যে মামলা করেছেন, তার এজাহারে রোজিনার বিরুদ্ধে অন্যান্য দেশের সঙ্গে বাংলাদেশের সম্পর্ক নষ্ট হতে পারে— এমন নথি সরানোর অভিযোগ আনা হয়।


এ বিভাগের আরও সংবাদ