1. [email protected] : ডেস্ক রিপোর্ট : ডেস্ক রিপোর্ট
  2. [email protected] : অনলাইন ডেস্ক : অনলাইন ডেস্ক
  3. [email protected] : নিজস্ব প্রতিবেদক : নিজস্ব প্রতিবেদক
  4. [email protected] : নিউজ এডিটর : নিউজ এডিটর
কৃষকের জন্য এক হাজার কোটি টাকার সার কিনছে সরকার - ebarta24.com
  1. [email protected] : ডেস্ক রিপোর্ট : ডেস্ক রিপোর্ট
  2. [email protected] : অনলাইন ডেস্ক : অনলাইন ডেস্ক
  3. [email protected] : নিজস্ব প্রতিবেদক : নিজস্ব প্রতিবেদক
  4. [email protected] : নিউজ এডিটর : নিউজ এডিটর
কৃষকের জন্য এক হাজার কোটি টাকার সার কিনছে সরকার - ebarta24.com
শনিবার, ০২ জুলাই ২০২২, ০২:৪৬ অপরাহ্ন

কৃষকের জন্য এক হাজার কোটি টাকার সার কিনছে সরকার

বাণিজ্য প্রতিবেদক
  • সর্বশেষ আপডেট : বৃহস্পতিবার, ১৬ জুন, ২০২২

তিনটি দেশ থেকে এক লাখ ৩০ হাজার টন সার কিনছে সরকার। সংযুক্ত আরব আমিরাত, কানাডা ও মরক্কো থেকে এই সার কেনা হবে। এ জন্য ব্যয় হবে এক হাজার ৯৪ কোটি ৫৯ লাখ টাকা।অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামালের সভাপতিত্বে গতকাল বুধবার অনুষ্ঠিত সরকারি ক্রয়সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির ভার্চুয়াল সভায় সার ক্রয়প্রস্তাবগুলো অনুমোদন দেয়া হয়। এগুলোসহ ১২টি প্রস্তাব অনুমোদন দিয়েছে সরকারি ক্রয়সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটি। এতে ব্যয় হবে ২,০৮৭ কোটি ৬৪ লাখ টাকা। সভা শেষে অনুমোদিত ক্রয়প্রস্তাবগুলোর বিভিন্ন দিক তুলে ধরেন মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব মো: জিল্লুর রহমান চৌধুরী।

অতিরিক্ত সচিব জানান, রাষ্ট্রীয় চুক্তির মাধ্যমে সংযুক্ত আরব আমিরাত থেকে নবম লটে ৩০ হাজার টন বাল্ক গ্র্যানুলার (অপশনাল) ইউরিয়া সার আমদানির অনুমোদন দিয়েছে কমিটি। প্রতি টন ইউরিয়া সার ৬৭৮.৮৩ ডলার হিসাবে ৩০ হাজার টন বাল্ক গ্র্যানুলার (অপশনাল) ইউরিয়া সার আমদানিতে ব্যয় হবে ১৭৯ কোটি ২১ লাখ টাকা।
সভায় রাষ্ট্রীয় পর্যায়ে চুক্তির আওতায় কানাডা থেকে চতুর্থ লটে ৩০ হাজার টন ডিএপি সার আমদানির প্রস্তাবে অনুমোদন দেয়া হয়েছে। প্রতি টন ৮৭৮.৭৫ মার্কিন ডলার হিসাবে সর্বমোট ২৪২ কোটি ৫৩ লাখ ৫০ হাজার টাকা ব্যয় হবে। তিনি জানান, রাষ্ট্রীয় পর্যায়ে চুক্তির আওতায় মরক্কো ষষ্ঠ লটে ৪০ হাজার টন ডিএপি সার আমদানির প্রস্তাবে অনুমোদন দিয়েছে কমিটি। প্রতি টন ১১৪২.৫০ ডলার হিসাবে ব্যয় হবে ৪২০ কোটি ৪৪ লাখ টাকা। তিনি জানান, রাষ্ট্রীয় পর্যায়ে চুক্তির আওতায় মরক্কো থেকে সপ্তম লটে ৩০ হাজার টন টিএসপি সার আমদানির প্রস্তাবে অনুমোদন দিয়েছে কমিটি। প্রতি টন ৯১৪.৫০ ডলার হিসাবে খরচ হবে ২৫২ কোটি ৪০ লাখ টাকা।

অতিরিক্ত সচিব জানান, টিসিবির মাধ্যমে ভর্তুকি দামে বিক্রির জন্য সরাসরি ক্রয়পদ্ধতিতে ১৫ হাজার টন চিনি কেনার একটি প্রস্তাবে অনুমোদন দিয়েছে কমিটি। দু’টি দরদাতা প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে প্রতি কেজি নেট প্যাকেট ৮৪.৬৯ টাকা এবং ৫০ কেজির নেট ব্যাগ প্রতি কেজি ৮১.৬৩ টাকা হিসাবে ১৫ হাজার টন চিনি ক্রয়ে ব্যয় হবে ১২৩ কোটি পাঁচ লাখ ৭০ হাজার টাকা। মেঘনা সুগার রিফাইনারি লিমিটেড এবং সিটি সুগার ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড এই চিনি সরবরাহ করবে। তিনি জানান, টিসিবির মাধ্যমে ঈদুল আজহা উপলক্ষে এক কোটি পরিবারে ভর্তুকি দামে বিক্রির জন্য সরাসরি ক্রয়পদ্ধতিতে ১৩ হাজার ৫০০ টন মসুর ডাল ক্রয়ের একটি প্রস্তাবে অনুমোদন দিয়েছে কমিটি। ৬টি দরদাতা প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে প্রতি কেজি ১১৭.৫০ টাকা হিসাবে ১৩ হাজার ৫০০ টন মসুর ডাল ক্রয়ে ব্যয় হবে ১৫৮ কোটি ৬২ লাখ ৫০ হাজার টাকা। ১.এসিআই পিউর ফ্লাওয়ার লিমিটেড, ২. সেনা কল্যাণ সংস্থা, ৩. এনএস কনস্ট্রাকশন, ৪. বাংলাদেশ এডিবল অয়েল লিমিটেড, ৫. নাবিল নব ফুডস লিমিটেড এবং ৬. ইজি সার্ভিসেস লিমিটেড- এই ৬টি প্রতিষ্ঠান মসুর ডাল সরবরাহ করবে। তিনি জানান, ‘বিদ্যুৎ বিতরণ ব্যবস্থা উন্নয়ন, কুমিল্লা জোন’ প্রকল্পের একটি প্যাকেজের আওতায় টার্নকি-ভিত্তিতে একটি নতুন সাবস্টেশন স্থাপন এবং ছয়টি সাবস্টেশন মানোন্নয়ন কাজের ক্রয়প্রস্তাবে অনুমোদন দিয়েছে কমিটি। সর্বনিম্ন দরদাতা প্রতিষ্ঠান যৌথভাবে (১) এলইইসি এবং (২) এডিইএক্স, বাংলাদেশ প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করবে। এ জন্য ব্যয় হবে ১৬০ কোটি ৬৫ লাখ টাকা।

অতিরিক্ত সচিব জানান, ‘বিদ্যুৎ বিতরণ ব্যবস্থা উন্নয়ন, কুমিল্লা জোন’ প্রকল্পের একটি প্যাকেজের আওতায় টার্নকিভিত্তিতে একটি নতুন সাবস্টেশন স্থাপন এবং ছয়টি সাবস্টেশনের মানোন্নয়ন কাজের ক্রয়প্রস্তাবে অনুমোদন দিয়েছে কমিটি। সর্বনিম্ন দরদাতা প্রতিষ্ঠান যৌথভাবে (১) এলইইসি এবং (২) এডিইএক্স, বাংলাদেশ প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করবে। এ জন্য ব্যয় হবে ১৬০ কোটি ৬৫ লাখ টাকা। তিনি জানান, র‍্যাবের কারিগরি ও প্রযুক্তিগত সক্ষমতা বৃদ্ধিকরণ প্রকল্পের আওতায় জিএসএম ইউএমটিএস ভেহিকুলার অ্যাক্টিভ সাপোর্ট সিস্টেম ক্রয়ের একটি প্রস্তাবে অনুমোদন দিয়েছে কমিটি। কম্পিউটার সার্ভিসেস লিমিটেড পণ্যটি সরবরাহ করবে। এতে ব্যয় হবে ৪৯ কোটি ২২ লাখ ৭০ হাজার টাকা।সভায় র‍্যাব ফোর্সেসের আভিযানিক সক্ষমতা বৃদ্ধিকরণ প্রকল্পের আওতায় ৩০টি জিপ (২৭০০ সিসি) ক্রয়ের অপর একটি প্রস্তাব অনুমোদন দেয়া হয়েছে। প্রগতি ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড জিপগুলো সরবরাহ করবে। এতে ব্যয় হবে ২৮ কোটি ২০ লাখ টাকা। অতিরিক্ত সচিব জানান, ‘ঢাকা এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে পিপিপি’ প্রকল্পের ক্ষতিগ্রস্তদের পুনর্বাসনে আনুষঙ্গিক সুবিধাদি নির্মাণ কাজের ভেরিয়েশনে অনুমোদন দিয়েছে কমিটি। ভেরিয়েশন বাবদ অতিরিক্ত ২৯ কোটি ৪৭ লাখ ৭১ হাজার ৯০১ টাকা ব্যয় বৃদ্ধির প্রস্তাব অনুমোদন দেয়া হয়েছে।

এ ছাড়াও সভায় শহীদ এম মনসুর আলী মেডিক্যাল কলেজ ও ৫০০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতাল, সিরাজগঞ্জ স্থাপন প্রকল্পের আওতায় ছয়তলা বিশিষ্ট হাসপাতাল ভবন নির্মাণকাজের ভেরিয়েশন প্রস্তাবে অনুমোদন দিয়েছে কমিটি। এতে ভেরিয়েশন বাবদ অতিরিক্ত ১৭ কোটি ৯ লাখ ৬৫ হাজার টাকা ব্যয় বৃদ্ধির প্রস্তাবে অনুমোদন দিয়েছে কমিটি। সভায় পায়রা ১৩২০ মেগাওয়াট (তাপবিদ্যুৎ) কেন্দ্রের সংযোগ সড়ক ও আনুষ্ঠানিক অবকাঠামো প্রকল্পের একটি প্যাকেজ নির্মাণকাজের ভেরিয়েশন প্রস্তাবে অনুমোদন দিয়েছে কমিটি। ভেরিয়েশন বাবদ অতিরিক্ত ১৬ কোটি ৮৪ লাখ ১২ হাজার ৬০১ টাকা ব্যয় হবে। কমিটি তাতে অনুমোদন দিয়েছে।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

এ বিভাগের আরও সংবাদ
ebarta24.com © All rights reserved. 2021