1. [email protected] : ডেস্ক রিপোর্ট : ডেস্ক রিপোর্ট
  2. [email protected] : অনলাইন ডেস্ক : অনলাইন ডেস্ক
  3. [email protected] : নিজস্ব প্রতিবেদক : নিজস্ব প্রতিবেদক
  4. [email protected] : নিউজ এডিটর : নিউজ এডিটর
শাবিতে পানিবন্দি শিক্ষার্থীদের উদ্ধার করল বিজিবি - ebarta24.com
  1. [email protected] : ডেস্ক রিপোর্ট : ডেস্ক রিপোর্ট
  2. [email protected] : অনলাইন ডেস্ক : অনলাইন ডেস্ক
  3. [email protected] : নিজস্ব প্রতিবেদক : নিজস্ব প্রতিবেদক
  4. [email protected] : নিউজ এডিটর : নিউজ এডিটর
শাবিতে পানিবন্দি শিক্ষার্থীদের উদ্ধার করল বিজিবি - ebarta24.com
শনিবার, ০২ জুলাই ২০২২, ০৩:০৯ অপরাহ্ন

শাবিতে পানিবন্দি শিক্ষার্থীদের উদ্ধার করল বিজিবি

সিলেট জেলা প্রতিনিধি
  • সর্বশেষ আপডেট : শনিবার, ১৮ জুন, ২০২২

বন্যায় আটকে পড়া সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক শিক্ষার্থীদের উদ্ধার করেছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ এর সদস্যরা।

শুক্রবার দিনভর বিজিবি সদস্যরা বিভিন্ন হল থেকে শিক্ষার্থীদের উদ্ধার করে নিয়ে আসে। এ সময় বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনও তাদের সহযোগিতা করে।

ক্যাম্পাসে পানি ঢুকে পড়ায় শুক্রবার জরুরি সিন্ডিকেট সভার সিদ্ধান্তে ২৫ জুন পর্যন্ত শাবির ক্লাস ও পরীক্ষা বন্ধ ঘোষণা করা হয়। এরপর থেকেই ক্যাম্পাস ছাড়তে শুরু করেন বিভিন্ন হলের শিক্ষার্থীরা। দুপুর থেকেই বিজিবি সদস্যরা ক্যাম্পাসে গিয়ে আটকে পড়া শিক্ষার্থীদের উদ্ধার করে নিয়ে আসে। বিশেষ করে, ছাত্রীদের উদ্ধারে সহায়তা করে বিজিবি।

এর আগে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা থেকে শাবি ক্যাম্পাসে পানি ঢুকতে শুরু করে। মূহূর্তেই তলিয়ে যায় ক্যাম্পাস। শুক্রবার সন্ধ্যায় ক্যাম্পাসের অনেক জায়গায় কোমর পর্যন্ত পানি উঠে যেতে দেখা গেছে। ২৪ বছর পর এবার শাবি ক্যাম্পাসে বন্যার পানি প্রবেশ করেছে বলে জানিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়টির শিক্ষকরা।

বিকেলে ক্যাম্পাসের গিয়ে দেখা যায়, বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রবেশ পথ, কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগার ভবন, চেতনা-৭১, একাডেমিক ভবন, ইউনিভার্সিটি সেন্টার, প্রথম ছাত্রী হল, বেগম সিরাজুন্নেসা চৌধুরী হলসহ প্রধান সড়কগুলোর অধিকাংশ জায়গায় পানি উঠে গেছে। এ সময় শিক্ষার্থীদের ক্যাম্পাস ও হল ছেড়ে বেরিয়ে আসতেও দেখা যায়। তবে বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনের সিলেট-সুনামগঞ্জ সড়কও পানিতে তলিয়ে যাওয়ায় বিপাকে পড়তে হয় তাদের।

মূল ফটকে যানবাহনের জন্য অপেক্ষায় থাকা শাবির ইংরেজি বিভাগের ছাত্রী সাগুফতা ইয়াসমিন বলেন, ‘হলের মধ্যে পানিবন্দি অবস্থায় ছিলাম। বিজিবি সদস্যরা সেখান থেকে আমাদের উদ্ধার করে নিয়ে এসেছেন। কিন্তু এখানে এসেও দেখি চারদিকে পানি। শহরে যাওয়ার কোনো গাড়ি পাচ্ছি না।’

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ইশরাত ইবনে ইসমাইল বলেন, ‘বন্যা পরিস্থিতির ক্রমশ অবনতি হচ্ছে। সকাল থেকেই বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের নির্দেশে শিক্ষার্থীদের নিরাপদে পৌঁছে দিতে আমরা কাজ করে যাচ্ছি। বিজিবি সদস্যরাও আমাদের সহযোগিতা করছে। বিশ্ববিদ্যালয়ে যতক্ষণ পর্যন্ত শিক্ষার্থীরা থাকবে ততক্ষণ আমরা তাদের নিরাপদে রাখতে কাজ করে যাবো।’

বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য ড. মো. আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, ‘সময় যতই গড়াচ্ছে বন্যার পরিস্থিতি খারাপের দিকে যাচ্ছে! ক্যাম্পাসের বেশিরভাগ এলাকা তলিয়ে গেছে। পরিস্থিতি বিবেচনায় সব ক্লাস-পরীক্ষা বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। তবে বিশ্ববিদ্যালয় ও আবাসিক হল সমূহ খোলা থাকবে। কোনো শিক্ষার্থী হলে থাকতে চাইলে নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় নিজ দায়িত্ব নিয়ে থাকতে হবে।’

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

এ বিভাগের আরও সংবাদ
ebarta24.com © All rights reserved. 2021