1. অন্যরকম
  2. অপরাধ বার্তা
  3. অভিমত
  4. আন্তর্জাতিক সংবাদ
  5. ইতিহাস
  6. এডিটরস' পিক
  7. খেলাধুলা
  8. জাতীয় সংবাদ
  9. টেকসই উন্নয়ন
  10. তথ্য প্রযুক্তি
  11. নির্বাচন বার্তা
  12. প্রতিবেদন
  13. প্রবাস বার্তা
  14. ফিচার
  15. বাণিজ্য ও অর্থনীতি

৮০টি পশু নিয়ে ঢাকায় এলো স্পেশাল ট্রেন

নিউজ এডিটর : ইবার্তা টুয়েন্টিফোর ডটকম
বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন, ২০২৪

চাঁপাইনবাবগঞ্জ রেলস্টেশন থেকে কোরবানির জন্য ৭১টি গরু ও ৯টি ছাগল নিয়ে ক্যাটল স্পেশাল ট্রেন ঢাকায় এসেছে।

বুধবার (১০ জুন) বিকেল সোয়া ৬টায় ট্রেনটি ঢাকার উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায়। প্রথম যাত্রায় চাঁপাইনবাবগঞ্জ রেলষ্টেশন থেকে ৪টি ওয়াগনে এসব গরু-ছাগল পাঠানো হয়। চীন থেকে আনা অত্যাধুনিক লাগেজ ভ্যানে যায় এসব গরু ছাগল।

রাজধানী ঢাকার বিভিন্ন পশুর হাটে কোরবানির জন্য এসব গরু-ছাগল তোলা হবে। পথে রাজশাহী, ইশ্বরদীতে গরু তুলে পদ্মা সেতু হয়ে রাত ২টা ১৫ মিনিটে ঢাকায় পৌঁছাবে ম্যাংগো ও ক্যাটল স্পেশাল ট্রেনটি৷ গত সোমবার এই ট্রেনের উদ্বোধন হলেও প্রথম দুদিন শুধু আম পরিবহণ করে এই বিশেষ ট্রেন। বুধবার প্রথম দিনেরমতো গরু-ছাগল ও আম নিয়ে চাঁপাইনবাবগঞ্জ রেলস্টেশন ছাড়ে ম্যাংগো ও ক্যাটল স্পেশাল ট্রেন।

গরু ব্যবসায়ী ও খামারিরা জানান, নিরাপদে ও কম খরচে গরু পরিবহনের সুবিধা রয়েছে বিশেষ এই ট্রেনে। সরকার লোকসানের পরেও গত কয়েকবছর ধরে এই ট্রেন চালু রাখায় খুশি তারা। খামারি হাসানুল হক বান্না বলেন, ট্রাকে গরু নিয়ে গেলে ঢাকায় যাওয়ার আগেই অসুস্থ হয়ে পড়ে। অতিরিক্ত গরম ও ঠাসাঠাসিতে গরু আহত হয়ে যায়। এতে দামও কম পাওয়া যায়। কিন্তু ট্রেনে এমন কোনো ঝুঁকি নাই। সুষ্ঠভাবে ভেজাল বিহীন উপায়ে গরু যায় ট্রেনে।

খামারি আব্দুল মতিন জানান, ট্রেনে অর্ধেকের চাইতেও কম খরচ। এছাড়াও রয়েছে পর্যাপ্ত আলো-বাতাসের সুবিধা। খুব আরামে বাড়িতে থাকার মতো করে গরু ঢাকায় পৌঁছে যায় খুবই কম সময়ে। বারবার লোকসানের পরেও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঐকান্তিক ইচ্ছাতে এই চালু রয়েছে। তাই প্রধানমন্ত্রীকে গরু খামারিদের কথা বিবেচনায় এমন উদ্যোগ নেয়ার জন্য ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানায়।

কতদিন এই ট্রেন চলবে তা নিশ্চিত করতে পারেনি রেল বিভাগ। তবে তাদের দাবি, যতদিন আম ও কোরবানির গরু-ছাগল পাওয়া যাবে, ততদিন চালু রাখা হবে এই বিশেষ ট্রেন। চাঁপাইনবাবগঞ্জ রেলস্টেশনের স্টেশন মাস্টার মো. ওবায়দুল্লাহ জানান, প্রথম দিন চাঁপাইনবাবগঞ্জ রেলওয়ে স্টেশন থেকে ৪টি ওয়াগনে ৭১টি গরু ও ৯টি ছাগল পরিবহণ করা হয়। এসব পশু পরিবহণ করে রেলওয়ের আয় হয়েছে ৬১ হাজার ৮৮০ টাকা। গতবারের মত এবারও ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে সাড়া পাওয়া গেছে। এতে করে ট্রেনে পশু পরিবহনে খামারিদের উৎসাহ বাড়বে বলে মনে করেন তিনি।

প্রসঙ্গত, ম্যাংগো ও ক্যাটল স্পেশাল ট্রেনে প্রতি ওয়াগনের ভাড়া ধরা হয়েছে ১৫ হাজার ৪৭০ টাকা। এতে গরুপ্রতি খরচ হবে ৭৭৩ টাকা ৫০ পয়সা ও ছাগলে ৩৮৬ টাকা ৭৫ পয়সা। এছাড়াও চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে কেজিপ্রতি ১ টাকা ৪৭ পয়সা খরচে আম পরিবহণ করছে বিশেষ এই ট্রেন।


সর্বশেষ - অভিমত