1. অন্যরকম
  2. অপরাধ বার্তা
  3. অভিমত
  4. আন্তর্জাতিক সংবাদ
  5. ইতিহাস
  6. এডিটরস' পিক
  7. খেলাধুলা
  8. জাতীয় সংবাদ
  9. টেকসই উন্নয়ন
  10. তথ্য প্রযুক্তি
  11. নির্বাচন বার্তা
  12. প্রতিবেদন
  13. প্রবাস বার্তা
  14. ফিচার
  15. বাণিজ্য ও অর্থনীতি

এক লবঙ্গেই যেসব দুশ্চিন্তার সমাধান

নিউজ এডিটর : ইবার্তা টুয়েন্টিফোর ডটকম
মঙ্গলবার, ১৮ জুন, ২০২৪

লবঙ্গ সাধারণত মসলা হিসেবে পরিচিত। মূলত লবঙ্গ গাছের ফুলের কুড়িকে শুকিয়ে প্রস্তুতকৃত অংশকেই লবঙ্গ বা লং বলা হয়। ইউজেনল নামে যৌগের কারণে লবঙ্গ সুগন্ধি হয়ে থাকে। এই যৌগের জীবাণুনাশক ও বেদনানাশক গুণ রয়েছে। ফলে রান্না ছাড়াও এই মসলার বহুবিধ ব্যবহার রয়েছে। দাঁতের যত্ন, পেট ও মাথাব্যথা, সর্দি-কাশি, বর্ণের চিকিৎসা এমনকি যৌন সমস্যায় লবঙ্গ বা লংয়ের কার্যকারিতা কালবেলা অনলাইনের পাঠকের জন্য তুলে ধরা হলো।

লবঙ্গ খাওয়ার উপকারিতা

১. লবঙ্গ কামোদ্দীপক। এর সুবাস অবসাদ দূর করে, শরীর ও মনের ক্লান্তি দূর করে। যৌনশক্তি বৃদ্ধিতেও লবঙ্গ বেশ কার্যকর। জীবনযাত্রায় নানা কারণে ধূমপান, মদ্যপান এবং দীর্ঘস্থায়ী রোগ পুরুষদের খারাপভাবে প্রভাবিত করতে পারে। ফলে শুক্রাণুর সংখ্যা কম হয়। অর্থাৎ শুক্রাণুর উৎপাদন বাধাগ্রস্ত হয়। পুরুষের উর্বরতা স্বাভাবিক রাখতে ডায়েট বড় ভূমিকা রাখে। সমীক্ষা বলছে, লবঙ্গে শক্তিশালী অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট কার্যকলাপ রয়েছে, যা ফ্রি র‌্যাডিক্যালের বিরুদ্ধে গিয়ে প্রজনন অঙ্গের ক্ষতি থেকে রক্ষা করে; যা শুক্রাণুর সংখ্যা বাড়ায় এবং শুক্রাণুর গুণমান ও গতিশীলতা বৃদ্ধি করে।

২. লবঙ্গে থাকা ফ্ল্যাভোনয়েড, অ্যালকালয়েড ও স্যাপোনিন যৌন ইচ্ছা বা কামশক্তি বৃদ্ধিতে সাহায্য করে। যৌন ক্ষমতা এবং টেস্টোস্টেরনের মাত্রা বৃদ্ধির পাশাপাশি অকাল বীর্যপাত রোধে বহু শতাব্দী ধরে লবঙ্গের ব্যবহার হয়ে আসছে। লবঙ্গ স্নায়ুতন্ত্রকে উত্তেজিত করে যৌন উত্তেজনা বৃদ্ধির পাশাপাশি সঙ্গমের ইচ্ছে বাড়াতে কার্যকর ভূমিকা রাখে।

৩. প্রচণ্ড স্ট্রেস ও উৎকণ্ঠা কমাতে এক টুকরো লবঙ্গ মুখে ফেলে চুষে খেয়ে ফেলুন। এমনকি লবঙ্গের চা পানেও মেজাজ ফুরফুরে হয়ে উঠবে।

৪. লবঙ্গ দাঁতের ব্যথা ও মাড়ির ক্ষয় নিরাময়ে বেশ কার্যকর। লবঙ্গের অ্যান্টিইনফ্লেমেটরি উপাদান শরীরে কিছু বিক্রিয়া করে নিমেষে দাঁতের যন্ত্রণা কমিয়ে দেয়।

৫. যাত্রাপথে বমি বমি ভাব দূর করতে মুখে লবঙ্গ দিয়ে রাখা যেতে পারে। এটি মুখে সুগন্ধি তৈরি করে বমি বন্ধে বেশ কাজ করে। বমির ভাব দূর করতে মুখে লবঙ্গ নিয়ে চুষতে পারেন অন্তঃসত্ত্বা নারীরাও।

৬. সর্দি–কাশি ও ঠান্ডা প্রতিরোধে লবঙ্গকে মহৌষধ হিসেবে বিবেচনা করা হয়ে থাকে। এটি চিবিয়ে রস গিলে খেলে বা লবঙ্গ মুখে রেখে চুষলে ঠান্ডা লাগা, অ্যাজমা, সর্দি, কফ, গলা ফুলে ওঠা আর শ্বাসকষ্টে বেশ সুফল পাওয়া যায়।

৭. সাইনোসাইটিসের রোগীদের চিকিৎসায় ওষুধ হিসেবে লবঙ্গ ব্যবহার করেন অনেকে। সাইনাসের কষ্ট কমাতে লবঙ্গের বিশেষ উপাদান ইগুয়েনাল সাহায্য করে।

৮. মাথাব্যথা ও মাথার যন্ত্রণা কমাতে লবঙ্গের জুড়ি নেই।

৯. পেট ফাঁপা ও পেটের অসুখ নিরাময়ে লবঙ্গ ব্যবহৃত হয়ে থাকে। এ উপাদান এনজাইম বৃদ্ধি করে পেটব্যথা, অজীর্ণ, বদহজম, খিদে না হওয়া, পেটের গ্যাস ও বায়ু এমনকি কলেরা বা আন্ত্রিক রোগ নিরাময় করে।


সর্বশেষ - অভিমত