1. অন্যরকম
  2. অপরাধ বার্তা
  3. অভিমত
  4. আন্তর্জাতিক সংবাদ
  5. ইতিহাস
  6. এডিটরস' পিক
  7. খেলাধুলা
  8. জাতীয় সংবাদ
  9. টেকসই উন্নয়ন
  10. তথ্য প্রযুক্তি
  11. নির্বাচন বার্তা
  12. প্রতিবেদন
  13. প্রবাস বার্তা
  14. ফিচার
  15. বাণিজ্য ও অর্থনীতি

উপবৃত্তি বিতরণ কার্যক্রম উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

ডেস্ক রিপোর্ট : ইবার্তা টুয়েন্টিফোর ডটকম
সোমবার, ২৪ জুন, ২০২৪

অসচ্ছল ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের (মাধ্যমিক থেকে স্নাতক (পাস) ও সমমান পর্যায়ের ) উপবৃত্তি ও টিউশন ফি বিতরণ কার্যক্রম উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

সোমবার (২৪ জুন) রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে এ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন তিনি।

অনুষ্ঠানে সবচেয়ে মেধাবী শিক্ষার্থীদের হাতে বঙ্গবন্ধু সৃজনশীল মেধা অন্বেষণ-২০২৪ এবং বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব স্কলার-২০২৩ তুলে দেন প্রধানমন্ত্রী।

শিক্ষামন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা ও সংস্কৃতি বিষয়ক উপদেষ্টা কামাল আবদুল নাসের চৌধুরী এবং শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী বেগম শামসুন নাহার বক্তব্য দেন।

স্বাগত বক্তব্যে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সচিব সুলেমান খান বলেন, এ প্রকল্পের মাধ্যমে মাধ্যমিক, উচ্চ মাধ্যমিক এবং স্নাতক ও সমপর্যায়ের ৬৪ লাখ ৭০ হাজারের বেশি শিক্ষার্থীর মধ্যে মোট ২ হাজার ২০৮ কোটি টাকা বিতরণ করা হবে।

তিনি বলেন, চলতি অর্থবছরে জিটুপি (গভর্নমেন্ট টু পারসন) পদ্ধতিতে শিক্ষার্থীদের অনলাইনে মোবাইল ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিসের মাধ্যমে উপবৃত্তি ও টিউশন ফি দেওয়া হচ্ছে।

এছাড়া, ১৫ জন মেধাবী শিক্ষার্থীকে বঙ্গবন্ধু সৃজনশীল মেধা অন্বেষণ-২০২৪ এবং স্নাতকোত্তর পর্যায়ের ২১ জন শিক্ষার্থীকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব স্কলার-২০২৩ দেওয়া হয়।

১৫ শিক্ষার্থীকে একটি করে সনদ ও ২ লাখ করে টাকা এবং স্কলার অ্যাওয়ার্ড-২০২৩ এর জন্য নির্বাচিত ২১ শিক্ষার্থীর প্রত্যেককে একটি সনদ ও ৩ লাখ করে টাকা দেওয়া হয়।

বঙ্গবন্ধু সৃজনশীল মেধা অন্বেষণ-২০২৪ প্রাপ্তদের পক্ষে হাজারীবাগ গার্লস স্কুল অ্যান্ড কলেজের অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী নুসরাত জাহান মালিহা, দিনাজপুরের আমেনা-বাকি রেসিডেনসিয়াল মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজের দশম শ্রেণির ছাত্রী আতিফা রহমান এবং খুলনার সরকারি মজিদ মেমোরিয়াল সিটি কলেজের একাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থী পিনাক মুগ্ধা দাস তাদের অনুভূতি ব্যক্ত করেন।

এছাড়া, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব স্কলার-২০২৩ প্রাপ্তদের পক্ষে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের শিক্ষার্থী জারিন তাসনিম রাইসা ও আল ফয়সাল বিন কাশেম কানন তাদের অনুভূতি ব্যক্ত করেন।


সর্বশেষ - অভিমত