1. অন্যরকম
  2. অপরাধ বার্তা
  3. অভিমত
  4. আন্তর্জাতিক সংবাদ
  5. ইতিহাস
  6. এডিটরস' পিক
  7. খেলাধুলা
  8. জাতীয় সংবাদ
  9. টেকসই উন্নয়ন
  10. তথ্য প্রযুক্তি
  11. নির্বাচন বার্তা
  12. প্রতিবেদন
  13. প্রবাস বার্তা
  14. ফিচার
  15. বাণিজ্য ও অর্থনীতি

ডাকাত-মাদকের আশ্রয়দাতা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক শিরিন

নিউজ এডিটর : ইবার্তা টুয়েন্টিফোর ডটকম
সোমবার, ৮ জুলাই, ২০২৪

একের পর এক বিতর্কে জড়িয়ে পড়ছেন কেন্দ্রীয় বিএনপির বরিশাল বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ও সাবেক সংসদ সদস্য বিলকিস জাহান শিরিন। তারপরেও রহস্যজনক কারণে নীরব বিএনপির হাইকমান্ড।

সম্প্রতি আন্তঃজেলা ডাকাত দলের সদস্য রেজাউল হক কিরন র‌্যাবের হাতে গ্রেপ্তার হওয়ার পরে তার পক্ষে বক্তব্য দিয়ে নতুন করে বিতর্কে জড়িয়েছেন সাবেক এমপি বিএনপির কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক বিলকিস জাহান শিরিন। এমনকি পুলিশের হাতে বিপুল পরিমাণ ফেনসিডিলসহ আটক হওয়ার পরেও মুশফিক হাসান মাছুমকে জেলা বিএনপির সদস্য বানান কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক বিলকিস জাহান শিরিন।

অভিযোগ রয়েছে, এই মাছুমই হচ্ছে বিলকিস জাহান শিরিনের পদ বাণিজ্যের ম্যানেজার। বিভিন্ন সময়ে নানা বিতর্কিত কর্মকাণ্ড আলোচিত থাকলেও তার বিরুদ্ধে কেউ মুখ খুলতে সাহস পায়নি। কিন্তু শিরিনের ডোনার ও আস্থাভাজন কিরন র‌্যাবের হাতে আটক হওয়ার পরই এ নেত্রীর বিরুদ্ধে মুখ খুলতে শুরু করেছেন দলের নেতারা। ক্ষমতাসীন দলের সঙ্গে যোগাযোগ, পদ বাণিজ্য, কেন্দ্র থেকে আসা টাকা আত্মসাৎসহ নিজস্ব লোকজনকে পদ-পদবি পাইয়ে দেওয়ার অভিযোগও উঠেছে তার বিরুদ্ধে। যদিও এসব স্বীকার করেননি তিনি। রাজনৈতিক প্রতিপক্ষ মিথ্যা ছড়াচ্ছে বলে দাবি তার।

দলীয় সূত্রে জানা গেছে, বরিশাল জেলা যুবদলের সহসাংগঠনিক সম্পাদক কিরনকে ৩ জুলাই গ্রেপ্তার করে র‌্যাব। তিনি মাদক বাণিজ্যের অভিযোগে এর আগেও কয়েকবার গ্রেপ্তার হয়েছেন। তার গ্রেপ্তার প্রসঙ্গে এখন পর্যন্ত কোনো বক্তব্য দেয়নি তার দল।

জেলা যুবদল সভাপতি তসলিম উদ্দিন বলেন, বিষয়টি স্পর্শকাতর তাই তদন্ত না করে মন্তব্য করব না। সংগঠন যখন কিরনের ব্যাপারে নীরব ঠিক সেই মুহূর্তে গণমাধ্যমে তার পক্ষে কথা বলেন শিরিন। নির্দোষ দাবি করার পাশাপাশি কিরন ষড়যন্ত্রের শিকার-বলেন তিনি। বিষয়টি নিয়ে দলে মিশ্র প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়।

মহানগর বিএনপির এক নেতা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, কেবল কিরন নয়, শিরিনের সহচর বরিশাল (দক্ষিণ) জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির সদস্য মুশফিকুল হাসান মাসুমও মাদক ব্যবসায়ী। কয়েকবার গ্রেপ্তারও হয়েছেন তিনি। কিন্তু দল থেকে তাদের বিরুদ্ধে কোনো সাংগঠনিক ব্যবস্থা না নিয়ে উল্টো এ দুজনকেই দলে পদ দিয়েছেন শিরিন। যোগ্যতা না থাকলেও ঘনিষ্ঠ হিসাবে এসব গুরুত্বপূর্ণ পদ পাইয়ে দিয়েছেন শিরিন।

কিরন-মাসুমকে রাজপথের কর্মী দাবি করে শিরিন বলেন, কে কী বলল তাতে কিছু আসে যায় না। ওরা রাজপথের কর্মী। পরীক্ষিত নেতা হিসেবে তাদের পক্ষে বলছি।

ত্যাগী-পরীক্ষিত দাবি করে উল্লিখিত দুজনের পক্ষে বললেও খোদ শিরিনের বিরুদ্ধেই রয়েছে আন্দোলনে না থাকার অভিযোগ। ১৫-১৬ বছরে তেমন কোনো মামলা হয়নি তার বিরুদ্ধে। কারণ তার স্বামী পুলিশের উচ্চ পদে আছেন। এমনকি বর্তমান ক্ষমতাসীন দলের আমলে দীর্ঘ ১৫ বছরে মাত্র একবার গ্রেপ্তার হন শিরিন। গ্রেপ্তার হলেও আদর যত্নে ছিলেন শেবাচিমে। সেখান থেকেই আওয়ামী লীগের এক প্রভাবশালী নেতার স্ত্রী তার আত্মীয় হওয়ায় মাত্র তিন দিনেই জামিন পান শিরিন। এ নিয়েও রয়েছে নানা সমালোচনা।

কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের সাবেক সদস্য কামরুল আহসান রুপন বলেন, সিটি নির্বাচনে বিএনপির বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক বিলকিস জাহান শিরিন আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীকের প্রার্থীর পক্ষে ভোট চাইছেন তার প্রমাণ আছে। এ ছাড়া তার আপন ছোট ভাই শামীম নৌকার প্রার্থীর প্রচার-প্রচারণা প্রকাশ্যে ফেসবুকে করছেন। নৌকা প্রতীকের প্রার্থী আবুল খায়ের আব্দুল্লাহর স্ত্রী লুনা আব্দুল্লাহ বিলকিস জাহান শিরিনের দূর-সর্ম্পকের ছোটবোন এবং দুজনের বাসা ১৬নং ওয়ার্ডে। সেই সূত্রে আবুল খায়ের আব্দুল্লাহ বিলকিস জাহান শিরিনের দুলাভাই। এই সর্ম্পক ধরে দুলাভাইয়ের জন্য ভোট চাইছিলেন শিরিন।

এমনকি সংবাদ সম্মেলন করে শিরিনের বিরুদ্ধে নৌকার পক্ষে কাজ করার অভিযোগ পর্যন্ত করেন পরাজিত মেয়র প্রার্থী বিএনপি নেতা সাবেক মেয়র আহসান হাবিব কামালের ছেলে কামরুল আহসান রুপম। গত বছরের নভেম্বরে গ্রেপ্তার ও তিন দিনের মাথায় ছাড়া পাওয়ার পর বরিশালের কোনো আন্দোলনে আর দেখা যায়নি শিরিনকে।

আন্দোলনের তহবিল তছরুপ ও কমিটি বাণিজ্যের অভিযোগও রয়েছে শিরিনের বিরুদ্ধে। সবশেষ সরকারবিরোধী আন্দোলন পরিচালনায় বরিশাল বিভাগের জন্য একটি মোটা অঙ্কের টাকা দেওয়া হয় কেন্দ্র থেকে। পুরো টাকা দেয়া হয় বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদকের দায়িত্বে থাকা শিরিনকে। প্রায় ৩০ লাখ টাকার মতো ছিল ওই বরাদ্দে। টাকা পেলেও তা বিতরণ প্রশ্নে নানা অভিযোগ ওঠে তার বিরুদ্ধে। কেন্দ্র থেকে পাঠানো টাকা কেউ পেয়েছেন তেমন নমুনাও মেলেনি।

মহানগর বিএনপির সাবেক সদস্য সচিব মীর জাহিদুল কবীর বলেন, আমাদের টাকায় আন্দোলন চালিয়েছি। কেন্দ্রের কোনো টাকা পাইনি।

জেলা (দক্ষিণ) বিএনপির আহ্বায়ক সাবেক এমপি আবুল হোসেন খান বলেন, আন্দোলন চালিয়েছি ব্যক্তিগত আর নেতাকর্মীদের কাছ থেকে পাওয়া টাকায়। কেন্দ্রের কোনো সহায়তা পাইনি।

জেলা উপজেলা এমনকি ইউনিয়ন পর্যায়ে পর্যন্ত কমিটি গঠন প্রশ্নে শিরিনের অনৈতিক হস্তক্ষেপ ও পছন্দের লোককে নেতা বানানোর অভিযোগও করেছেন অনেক। কমিটি গঠন নিয়ে পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় তার বিরুদ্ধে ঝাড়ু-মিছিল এবং ঝালকাঠির কাঁঠালিয়ায় সংবাদ সম্মেলন হয়েছে।

পটুয়াখালী জেলা বিএনপির সদস্য সচিব স্নেহাংশু সরকার কুট্টি বলেন, বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক হিসাবে পটুয়াখালীর কমিটি করার দায়িত্ব ছিল শিরিনের। কেনো তাকে সেই দায়িত্ব থেকে সরিয়ে দেওয়া হলো-এটা খুঁজলেই তো বাকি সব পরিষ্কার। দল নয়, নিজের আখের গোছানোর টার্গেট নিয়ে পটুয়াখালী আসতেন তিনি। বিষয়টি নিয়ে অভিযোগ ওঠায় সরিয়ে দেওয়া হয়।

বরিশাল জেলা (দক্ষিণ) বিএনপির আহ্বায়ক সাবেক এমপি আবুল হোসেন খান বলেন, সরকারবিরোধী আন্দোলনে গত বছরের ১ নভেম্বর গ্রেপ্তার হই আমি ও শিরিন। গ্রেপ্তারের দিনই শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের কেবিনে চলে যান শিরিন। ৩ দিনের মাথায় নিম্ন আদালত থেকে জামিন পান।

এসব অভিযোগ সম্পর্কে শিরিন বলেন, দলের ভেতর যারা গোলমাল বাধাতে চান তারা এসব অপপ্রচার চালাচ্ছেন। ছাত্রজীবন থেকে রাজনীতি করছি। দলের জন্য জীবনবাজি রেখেছি। কেন্দ্রীয় নেতারা জানেন আমার সম্পর্কে। উড়ে এসে জুড়ে বসারা এসব কথা বলছেন।


সর্বশেষ - অভিমত

নির্বাচিত

ছুটির দিনে টুঙ্গিপাড়ায় প্রধানমন্ত্রী, বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে শ্রদ্ধা

দক্ষ নেতৃত্বের অভাবে বিরোধী দলগুলো জনগণের আস্থা অর্জনে ব্যর্থ হয়েছে : প্রধানমন্ত্রী

আড়িয়াল খাঁ নদীর সেই কুমির গেলো বন্যপ্রাণী পুনর্বাসন কেন্দ্রে

রমজান ঘিরে বেড়েছে আমদানি: হবে না পণ্যের সংকট, বাড়বে না দাম

ই-টিকেটিংয়ে স্বস্তি, বন্ধ হচ্ছে অতিরিক্ত ভাড়া আদায়

কৃষকের সুদিন : নরসিংদীতে হচ্ছে নতুন দুই সার কারখানা

১৫ ফেব্রুয়ারি ইতিহাসের কলঙ্কজনক অধ্যায় : প্রধানমন্ত্রী

আত্মসমর্পণকারী জলদস্যুদের মাঝে ঈদ সামগ্রী বিতরণ

চট্টগ্রামসহ যেকোনো বড় শহরে মেট্রোরেল হবে: শেখ হাসিনা

‘মুজিবের বাংলাদেশ’ লোগো ও স্মারক ডাকটিকিট অবমুক্ত