বৃহস্পতিবার, ০৬ অগাস্ট ২০২০, ০৯:০৮ অপরাহ্ন

রোহিঙ্গা সমস্যা বাংলাদেশের জন্য বাড়তি চাপ: বিশ্বব্যাংকের কান্ট্রি ডিরেক্টর

ইবার্তা ডেস্ক
আপডেট : শুক্রবার, ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৭

রোহিঙ্গা সমস্যা বাংলাদেশের জন্য একটি বাড়তি এবং অন্যতম চাপ বলে মনে করছেন বিশ্বব্যাংকের কান্ট্রি ডিরেক্টর চিমিয়াও ফান। তিনি বলেন, এ জন্য আমরা উদ্বিগ্ন। বুধবার (২৭ সেপ্টেম্বর) বাংলাদেশ ডেভেলপমেন্ট আপডেট শীর্ষক এক প্রতিবেদন প্রকাশ অনুষ্ঠানে তিনি এ উদ্বেগের কথা জানান।

চিমিয়াও ফান বলেন, তাদের (রোহিঙ্গা) শিক্ষা, স্বাস্থ্য ও স্যানিটেশন নিশ্চিত করা এখন অন্যতম চ্যালেঞ্জ। এই ইস্যুতে বিশ্বব্যাংক বাংলাদেশকে সহায়তা করতে প্রস্তুত। সরকার চাইলে সহায়তা দেয়া হবে বলেও জানান তিনি।

এদিকে সংস্থাটির প্রকাশিত বাংলাদেশ ডেভেলপমেন্ট আপডেট শীর্ষক ওই প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে চলতি অর্থ বছরে বাংলাদেশের দেশজ উৎপাদনের (জিডিপি) প্রবৃদ্ধি হবে ৬.৪ শতাংশ। আর মূল্যস্ফীতি দাঁড়াবে ৬ শতাংশ।

রাজধানীর আগারগাঁওয়ে সংস্থাটির কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে প্রতিবেদনটি প্রকাশ করা হয়। প্রতিবেদনে বলা হয়, বাংলাদেশ সরকার এ বছর ৭. ২ শতাংশ প্রবৃদ্ধির যে আশার কথা শুনিয়েছে, তা অর্জন করতে হলে বেশ কয়েকটি চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করতে হবে। এর মধ্যে ঢাকা ও ঢাকার বাইরে বেসরকারি খাতে ‘প্রচুর বিনিয়োগ’ ও কর্মসংস্থান সৃষ্টি করা। তা করতে না পারলে আগামী অর্থবছর শেষে জিডিপি প্রবৃদ্ধি ৬ দশমিক ৪ শতাংশের বেশি হবে না।

পর পর দুটি বড় বন্যা ও সরকারর সিদ্ধান্তহীনতার কারণে চালের দাম ব্যাপকভাবে বেড়েছে বলে মনে করছে বিশ্বব্যাংক। সংস্থাটির প্রধান অর্থনীতিবিদ জাহিদ হোসেন বলেন, সরকারি যে সব সিদ্ধান্ত তা বাস্তবায়নে সময় নেওয়া হয়েছে। শুল্ক কমানো হলে সে অর্ডার বন্দরে পৌঁছতে সময় লেগেছে। ফলে সরকারের কাছে চালের মজুদ না থাকায় ব্যবসায়ী তথা বাজার সুবিধা নিয়েছে। ব্যবসায়ীরা দাম বাড়িয়ে দিয়েছে।

অন্যদিকে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি) গতকাল তাদের বার্ষিক প্রতিবেদন ‘এশিয়ান ডেভেলপমেন্ট আউটলুক ২০১৭’-এ বলেছে, এ বছর বাংলাদেশের প্রবৃদ্ধি হবে ৬ দশমিক ৯ শতাংশ। যা বিশ্ব ব্যাংকের প্রবৃদ্ধি ধারণার চেয়ে দশমিক ৫ শতাংশ বেশি।

অনুষ্ঠান অন্যদের মধ্যে বিশ্বব্যাংকের বাংলাদেশ, ভুটান ও নেপালের কান্ট্রি ডিরেক্টর চিমিয়াও ফান,প্রধান অর্থনীতিবিদ জাহিদ হোসেন ও জনসংযোগ কর্মকর্তা মেহরীন এ মাহবুব উপস্থিত ছিলেন।


আরও সংবাদ