1. [email protected] : অনলাইন ডেস্ক : অনলাইন ডেস্ক
  2. [email protected] : নিজস্ব প্রতিবেদক : নিজস্ব প্রতিবেদক
  3. [email protected] : নিউজ এডিটর : নিউজ এডিটর
১০ কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগে জামায়াত নেতার স্ত্রী আটক - ebarta24.com
  1. [email protected] : অনলাইন ডেস্ক : অনলাইন ডেস্ক
  2. [email protected] : নিজস্ব প্রতিবেদক : নিজস্ব প্রতিবেদক
  3. [email protected] : নিউজ এডিটর : নিউজ এডিটর
১০ কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগে জামায়াত নেতার স্ত্রী আটক - ebarta24.com
বৃহস্পতিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৮:২১ অপরাহ্ন

১০ কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগে জামায়াত নেতার স্ত্রী আটক

সুভাষ হিকমত
  • সর্বশেষ আপডেট : বুধবার, ১৫ সেপ্টেম্বর, ২০২১

পাবনায় হালাল উপার্জনের প্রলোভন দেখিয়ে প্রায় ১০ কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগে এক জামায়াত নেতার স্ত্রী ও স্কুল শিক্ষিকাকে আটক করা হয়েছে।

মঙ্গলবার প্রতারণার শিকার ব্যক্তিরা ওই নারীর বাড়ি ঘিরে বিক্ষোভ করতে থাকলে পুলিশ তাকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়।

ভুক্তভোগীরা জানান, পাবনা পৌর এলাকার আটুয়া হাউজ পাড়া মহল্লার সাবেক জামায়াত নেতা মৃত হানিফুল ইসলামের স্ত্রী ও পুলিশ লাইনস স্কুল এন্ড কলেজের প্রাথমিক শাখার শিক্ষিকা মোছা. সীমা আক্তার (৪০) মানুষকে ইসলামী শরিয়া মোতাবেক গরুর খামার ও আরো নানা ধরনের হালাল উপর্জনের কথা বলে কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন।

মানুষ তার কথায় বিশ্বাস করে লাভের আশায় তার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে অর্থ বিনিয়োগ করে। টাকার অংক বেড়ে গেলে তিনি সমস্ত টাকা আত্মসাত করে গা ঢাকা দেন। এই ঘটনার পরে স্কুল কর্তৃপক্ষ ওই শিক্ষিকাকে সাময়িক বরখাস্ত করেছে।

অভিযোগের বিষয়ে সীমা আক্তার বলেন, আমার কোন বৈধ ব্যবসা নাই। এক জনের কাছ থেকে টাকা নিয়ে আরেক জনকে দিয়েছি। যারা টাকা দিয়েছে তাদেরকে সুদে অনেক টাকা লাভ দিয়েছি। অমি কারো টাকা আত্মসাত করিনি। সম্প্রতি যারা আমাকে টাকা দিয়েছে তাদের টাকার একটি হিসাব করেছি। সেখানে প্রায় তিন কোটি টাকার মত হবে। সেই সকল টাকা আমি দিয়ে দিবো। জেলা পুলিশ আমাকে আসতে বলেছে বলে আমি এসেছি।

উল্লেখ্য, ইসলামি বিধানে সুদ হারাম, কিন্তু সীমা আক্তার ইসলামের দোহাই দিয়ে হালাল পয়সার কথা বলে এখন আবার সুদের কথা বলছে।

জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার স্নিগ্ধ আখতার বলেন, এই ঘটনার বিষয়ে আমরা অবগত হয়েছি। তার বিরুদ্ধে এই ধরনের অভিযোগের কারণে তাকে স্কুল থেকে বরখাস্ত করা হয়েছে। তার প্রতারণার বিষয়ে আমাদের কাছে লিখিত অভিযোগ নিয়ে এসেছিলো ভুক্তভোগীরা। আমরা তাকে জিজ্ঞাসা বাদের জন্য আটক করেছি। অনেকেই তার বিরুদ্ধে তথ্য প্রমাণ নিয়ে এসেছেন।

তিনি বলেন, ভুক্তভোগীরা তার বাড়িতে তাকে সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত অববরুদ্ধ করে রেখেছিলো। সেখান থেকে তাকে উদ্ধার করে থানাতে নিয়ে আসা হয়েছে। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। তদন্ত শেষে তার বিরুদ্ধে অভিযোগের আলোকে মামলা করা হবে।





সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

এ বিভাগের আরও সংবাদ





ebarta24.com © All rights reserved. 2021