1. [email protected] : অনলাইন ডেস্ক : অনলাইন ডেস্ক
  2. [email protected] : নিজস্ব প্রতিবেদক : নিজস্ব প্রতিবেদক
  3. [email protected] : নিউজ এডিটর : নিউজ এডিটর
শেখ হাসিনার জন্মদিনে আ.লীগ এর স্মারকগ্রন্থ - ebarta24.com
  1. [email protected] : অনলাইন ডেস্ক : অনলাইন ডেস্ক
  2. [email protected] : নিজস্ব প্রতিবেদক : নিজস্ব প্রতিবেদক
  3. [email protected] : নিউজ এডিটর : নিউজ এডিটর
শেখ হাসিনার জন্মদিনে আ.লীগ এর স্মারকগ্রন্থ - ebarta24.com
বুধবার, ২০ অক্টোবর ২০২১, ০৮:১৮ অপরাহ্ন

শেখ হাসিনার জন্মদিনে আ.লীগ এর স্মারকগ্রন্থ

সুভাষ হিকমত
  • সর্বশেষ আপডেট : সোমবার, ২০ সেপ্টেম্বর, ২০২১

১৯৮১ সালে দেশে ফিরে আওয়ামী লীগের হাল ধরেন বঙ্গবন্ধুর জ্যেষ্ঠ কন্যা শেখ হাসিনা। তার নেতৃত্বের চার দশক ও ২৮ সেপ্টেম্বর ৭৫তম জন্মদিন উপলক্ষে একটি স্মারকগ্রন্থ প্রকাশের সিদ্ধান্ত নিয়েছে ক্ষমতাসীন দলটি।

শনিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) দলটির সম্পাদকমণ্ডলীর সভায় এ সিদ্ধান্ত হয়। বৈঠকে উপস্থিত একাধিক নেতা এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

নেতারা জানিয়েছেন, স্মারকগ্রন্থে শেখ হাসিনার চার দশকের নেতৃত্বে দল ও দেশের জন্য তার অবদান, কর্মজীবনের নানা অধ্যায় উঠে আসবে। এছাড়াও এ নিয়ে একটি ক্রোড়পত্র প্রকাশ করবে আওয়ামী লীগ। এগুলোর সমন্বয়ের জন্য দলের তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক ড. সেলিম মাহমুদকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

এছাড়াও জন্মদিনে (২৮ সেপ্টেম্বর) বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে (বিআইসিসি) শেখ হাসিনার জীবন ও কর্মের ওপর আলোচনা সভারও আয়োজন করবে ক্ষমতাসীন দলটি।

বৈঠকে আওয়ামী লীগ নেতারা জানান, বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী, স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী এবং শেখ হাসিনার নেতৃত্বের চার দশক পূর্তির বছরে তার জন্মদিন একটু বর্ণাঢ্য ও স্মরণীয় রাখার মতো করে উদযাপন করতে চায়। এজন্য বিশদ আলোচনাও হয়।

বৈঠকে ৯ সেপ্টেম্বর আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সংসদের সভায় গৃহীত সিদ্ধান্তাবলী বাস্তবায়নের কার্যপদ্ধতি আলোচনা হয়। ওই বৈঠকের সিদ্ধান্ত ছিল- সারাদেশের সংগঠনকে গতিশীল করে নির্বাচনের প্রস্তুতি গ্রহণ, সেমিনার করে অংশীজনের মতামত নিয়ে নির্বাচনী ইশতেহার প্রণয়ন এবং দলের সব পর্যায়ের দ্বন্দ্ব-কোন্দল নিরসন করা।

ভুঁইফোঁড় নিয়ে যত কথা

আওয়ামী লীগের সম্পাদকমণ্ডলীর সভায় ভুঁইফোঁড় সংগঠনের বিষয়ে আলোচনা তুলেন খোদ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। তিনি বেশিরভাগ সংগঠনকে ‘চাঁদাবাজির দোকান’ আখ্যা দিয়ে কেন্দ্রীয় নেতাদের সেগুলোতে যেতে নিষেধ করেন। এক নেতা মন্ত্রীদের না যাওয়ার বিষয়েও দৃষ্টি আকর্ষণ করলে ওবায়দুল কাদের বলেন, ভুঁইফোড় সংগঠনের প্রোগ্রামে মন্ত্রীদেরও না যেতে অনুরোধ করব।

শনিবার সকালে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সম্পাদকমণ্ডলীর সভা হয়। এতে সূচনা বক্তব্য দেন সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। পরে রুদ্ধদ্বার বৈঠক করেন সম্পাদকরা।

সূচনা বক্তব্যে ওবায়দুল কাদের বলেন, রাষ্ট্রপতির আহ্বানে ও সব দলের সঙ্গে আলোচনা করেই সার্চ কমিটির মাধ্যমে নির্বাচন কমিশন গঠন করা হয়েছে। সেখানে বিএনপিসহ সব দলের প্রতিনিধিত্ব ছিল। এবারও সব রকম গ্রহণযোগ্য পন্থায় নির্বাচন কমিশন গঠন করা হবে।

এসময় ‘জাতীয় সংসদ নির্বাচন আসার আগেই বিএনপি নির্বাচন কমিশনকে বিতর্কিত করার চেষ্টা করছে’ বলেও অভিযোগ করেন তিনি।

আগাম নির্বাচন বা দলের আগাম সম্মেলনের বিষয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘জাতীয় সংসদ নির্বাচন আইন অনুযায়ী যথাসময়ে অনুষ্ঠিত হবে। আমাদের দলের সম্মেলনও নির্ধারিত সময়ে হবে। আওয়ামী লীগে আগাম সম্মেলনের নজির নেই।

এসময় মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্ম লীগকে ‘চাঁদাবাজ’ আখ্যা দিয়ে সংগঠনটির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠান বন্ধ করে দেওয়ার নির্দেশ দিয়ে কাদের বলেন, এসব দোকান অনেকে খুলে থাকে চাঁদাবাজির জন্য। এগুলো আসলে চাঁদাবাজদের প্রতিষ্ঠান। অবশ্য সবাই করে তা নয়, কিছু কিছু প্রতিষ্ঠান আছে, এরা চাঁদাবাজি নির্ভর। এরা দলের নাম ভাঙায়।

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ অফিসের সামনে কিছুক্ষণ আগে খবর পেলাম, প্রতিষ্ঠালগ্নের কী আয়োজন করেছে আওয়ামী মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্ম লীগ। মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্মের ব্যাপারে আমাদের কোনো দ্বিমত নেই। কিন্তু লীগ আর আওয়ামী যখন যুক্ত হয়, তখন এখানে আমাদের সংশ্লিষ্টতা এসে যায়। এখানে আমাদের ভাবমূর্তির বিষয়টা এসে যায়।

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক দলের কেন্দ্রীয় নেতাদের উদ্দেশে বলেন, এসব সংগঠনের কোনো প্রকার আয়োজনে, প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী হোক যেটাই হোক, আমি আমাদের কেন্দ্রীয় নেতাদের আহ্বান জানাব, আপনারা কোনো অবস্থায়ই এসব সংগঠনের সভায় আনুষ্ঠানিকভাবে উপস্থিত থাকবেন না।

এদিন সকালে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে দলটির সম্পাদকমণ্ডলীর সভায় যোগ দিতে যথারীতি কার্যালয়ে আসেন সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। এসময় কার্যালয়ের সামনে ‘মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্ম লীগ’র অনুষ্ঠান প্রস্তুতি তার চোখে পড়ে। পরে কার্যালয়ে ঢুকে দলের দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়াকে প্রজন্ম লীগের অনুষ্ঠান বন্ধ করতে নির্দেশ দেন। ওবায়দুল কাদেরের নির্দেশে দলের দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া প্রজন্ম লীগের অনুষ্ঠান বন্ধ করে দেন। পরে মঞ্চ ও অন্যান্য আয়োজন গুটিয়ে নেয় সংগঠনটি।





সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

এ বিভাগের আরও সংবাদ





ebarta24.com © All rights reserved. 2021