মঙ্গলবার, ২৭ অক্টোবর ২০২০, ০১:১১ পূর্বাহ্ন

হুজি নেতা পলাতক দেলোয়ারের প্রতারণার বিরুদ্ধে লুকাস ব্যাটারীর প্রতিবাদ

ইবার্তা ডেস্ক
আপডেট : বৃহস্পতিবার, ৮ অক্টোবর, ২০২০

কনক সরওয়ার ও ইলিয়াস গংদের প্রপাগান্ডার বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন

বহু বিতর্কিত কর্মকাণ্ডের হোতা হুজি নেতা ও সেনাবাহিনী কর্তৃক নিষিদ্ধ ঘোষিত কথিত মেজর দেলোয়ার হোসেন কর্তৃক একটি ইউটিউব চ্যানেলে লুকাস ব্যাটারীতে চাঁদাবাজি করা হচ্ছে বলে ভ্রান্ত দাবি করে দেশের গণ্যমান্য ব্যক্তিদের মানহানি করার অপচেষ্টা করা হয়। এমন প্রতারণামূলক অভিযোগের প্রতিবাদ জানিয়েছে লুকাস ব্যাটারি কর্তৃপক্ষ।

এর আগে সাংবাদিক হারুনুর রশীদের সঙ্গে ভার্চুয়াল টকশোতে অংশ নিয়েছে এমন দাবি করে ডিজিটাল প্রতারণার আশ্রয় নেয় দেলোয়ার। সাংবাদিক হারুণ, ভিডিও এডিট করে তার ভিডিও সংযুক্ত করে ভুয়া টকশো তৈরির প্রতিবাদ জানিয়ে থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন।

উল্লেখ্য, মেজর দেলোয়ারের বিরুদ্ধে দুর্নীতি, জালিয়াতি করে ঋণ গ্রহণ, মানি লন্ডারিং সহ বহু অভিযোগ রয়েছে। সেনাবাহিনীতে কর্মরত থাকাকালেই তার বিরুদ্ধে জঙ্গি সংগঠন হরকাতুল জেহাদের সঙ্গে সম্পৃক্ততার অভিযোগ ওঠে। রাজনীতি করতে এলডিপিতে যোগ দিলেও ২০০৮ সালে হুজির রাজনৈতিক দল গঠনের সঙ্গে তার সম্পৃক্ততা ছিল। এক পর্যায়ে আমেরিকা পালিয়ে যায় দেলোয়ার।

একটি সূত্রে জানা গেছে, ইন্টারপোলে রেড এলার্ট জারি করে দেলোয়ারকে দেশে ফিরিয়ে আনা হবে।

মেজর দেলোয়া্রের প্রতারণামূলক অভিযোগের প্রতিবাদ জানিয়ে লুকার ব্যাটারির পক্ষ থেকে আয়োজিত প্রেস কনফারেন্সে প্রতিষ্ঠানটির জেনারেল ম্যানেজার মেজর (অব) একেএম নিয়ামুল হক প্রেস বিজ্ঞপ্তিটি সাংবাদিকদের কাছে তুলে ধরেন।

প্রেস বিজ্ঞপ্তি

গত ২ই অক্টোবর ২০২০ ইং তারিখে সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি টকশোর ভিডিও আমাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছে। টকশোতে ড. কনক সারোয়ার, মেজর দেলোয়ার হোসেন (অবঃ) এবং জনাব ইলিয়াস হোসেন’কে উপস্থিত দেখা যায়। মেজর দেলোয়ার হোসেন (অবঃ) এখানে তার বক্তব্যে বলেন যে, লুকাস ব্যাটারীর নিকট ৫৫০ কোটি টাকা চাঁদাবাজি করার চেষ্টা করা হয়েছে।

সকলের অবগতির জন্য জানাচ্ছি যে, মেজর দেলোয়ার হোসেন (অবঃ) লুকাস ব্যাটারীর নিকট ৫৫০ কোটি টাকা চাঁদাবাজি করার চেষ্টা করা হচ্ছে এই মর্মে যে দাবি করেছে, তা সম্পূর্ণরূপে মিথ্যা, বানোয়াট, ভিত্তিহীন ও উদ্দেশ্যপ্রণোদিত।

প্রকৃতপক্ষে আমাদের নিকট কেউ কোন প্রকার চাঁদা দাবি করে নাই। এরূপ বক্তব্যের কারণে সরকারের উচ্চ পর্যায়ের কর্মকর্তাসহ আমাদের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন হয়েছে, যাহা খুবই অনাকাঙ্ক্ষিত। এরূপ মিথ্যা, বানোয়াট, ভিত্তিহীন ও উদ্দেশ্যপ্রণোদিত অনলাইন সংবাদ ও ইউটিউবে প্রচারিত বক্তব্য বন্ধের পাশাপাশি ভবিষ্যতে এই ধরনের অপপ্রচার রোধ করার জন্য অপপ্রচারকারীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার জন্যও সরকারের সংশ্লিষ্ট দপ্তরের নিকট বিনীত অনুরোধ করছি।

এরূপ মিথ্যা, বানোয়াট, ভিত্তিহীন ও উদ্দেশ্যপ্রণোদিত সংবাদ/বক্তব্য এড়িয়ে চলার জন্য সকলের প্রতি আহবান জানাচ্ছি।

ধন্যবাদান্তে
মেজর একেএম নিয়ামুল হক (অবঃ)
জেনারেল ম্যানেজার
মানব সম্পদ, প্রশাসন এবং রেগুলেটরী অফিসার
লুকাস ব্যাটারী


আরও সংবাদ