1. [email protected] : অনলাইন ডেস্ক : অনলাইন ডেস্ক
  2. [email protected] : নিজস্ব প্রতিবেদক : নিজস্ব প্রতিবেদক
  3. [email protected] : নিউজ এডিটর : নিউজ এডিটর
১৮ বছরের নিচে টিকার ভাবনা প্রধানমন্ত্রীর - ebarta24.com
  1. [email protected] : অনলাইন ডেস্ক : অনলাইন ডেস্ক
  2. [email protected] : নিজস্ব প্রতিবেদক : নিজস্ব প্রতিবেদক
  3. [email protected] : নিউজ এডিটর : নিউজ এডিটর
১৮ বছরের নিচে টিকার ভাবনা প্রধানমন্ত্রীর - ebarta24.com
মঙ্গলবার, ১৯ অক্টোবর ২০২১, ০৭:৪৪ পূর্বাহ্ন

১৮ বছরের নিচে টিকার ভাবনা প্রধানমন্ত্রীর

কমলিকা হাসান
  • সর্বশেষ আপডেট : সোমবার, ৪ অক্টোবর, ২০২১

১৮ বছরের কম বয়সীদের টিকা দেয়া যায় কি না তার টেকনিক্যাল বিষয় দেখার জন্য স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়কে নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সোমবার (৪ অক্টোবর) অনুষ্ঠিত মন্ত্রিপরিষদ সভায় প্রধানমন্ত্রী এ নির্দেশ দিয়েছেন বলে জানিয়েছেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মন্ত্রিসভার এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে গণভবন থেকে প্রধানমন্ত্রী ও সচিবালয়ের মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে মন্ত্রী এবং প্রতিমন্ত্রীরা বৈঠকে যোগ দেন।

বৈঠক শেষে সচিবালয়ে আয়োজিত ব্রিফিংয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, ভ্যাকসিনের বিষয়ে বৈঠকের ইন্ট্রোডাকশনেই প্রধানমন্ত্রী নির্দেশনা দিয়েছেন যে, আমরা তো ১৮ বছর পর্যন্ত দিচ্ছি, ১৮ এর নিচের বাচ্চাদের দেয়া যায় কি না তা এক্সপ্লোর করার জন্য, টেকনিক্যাল বিষয় দেখতে হবে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়কে।

তিনি আরও বলেন, শুরুতে ৫৫ বছর বয়সীদের টিকার জন্য নিবন্ধন করার অনুমোদন দেওয়া হয়েছিল। পরে তা কমিয়ে ৪০ বছর করা হয়। তৃতীয় দফায় কমিয়ে ৩৫ বছর করা হয়। চতুর্থ দফায় তা আরও কমিয়ে ৩০ বছর করা হয়। এরপর তা আরও কমিয়ে ২৫ বছর করা হয়। এরপর বয়সের সীমা আরও কমানো হয়। বর্তমানে ১৮ বছর বয়সী শিক্ষার্থীরা করোনার টিকা নিতে পারছেন। গত ১৯ আগস্ট রাত থেকে সুরক্ষা অ্যাপে ১৮ বছর বা তদূর্ধ্ব ছাত্রছাত্রীদের জন্য টিকা নিবন্ধনের অপশন চালু করা হয়।

এর আগে টিকা নেয়ার জন্য সর্বনিম্ন বয়সসীমা ২৫ বছর নির্ধারণ করেছিল সরকার। দেশে চলতি বছরের ৭ ফেব্রুয়ারি অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার কোভিশিল্ড দিয়ে প্রথম টিকা কার্যক্রম শুরু হয়।

৮ ফেব্রুয়ারি করোনার টিকা নিতে নিবন্ধনের জন্য ৪০ বছর বয়সসীমা নির্ধারণ করে সরকার। সেদিন দুপুরে সচিবালয়ে মন্ত্রিসভার বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ নির্দেশনা দেন। এর আগে ৫৫ বছর বা তার বেশি বয়সীদের টিকার জন্য নিবন্ধন করার অনুমোদন দেয়া হয়েছিল।

ওই সময় টিকা নেয়ার জন্য ৪০ বছরের বেশি বয়সীরা ছাড়া শুধু চিকিৎসাসেবার সঙ্গে সরাসরি জড়িত ব্যক্তি, পুলিশসহ অন্যান্য বাহিনীতে কর্মরত ব্যক্তিসহ করোনা মোকাবিলায় নিয়োজিত সম্মুখসারীর যোদ্ধারা নিবন্ধন করতে ও টিকা নিতে পারছিলেন।

পরে ৫ জুলাই স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক (ডিজি) অধ্যাপক ড. আবুল বাসার মোহাম্মদ খুরশিদ আলম সাংবাদিকদের জানান, এখন থেকে ৩৫ বছর বয়সীরাও নিবন্ধন করতে পারবেন।

এরপর ১৯ জুলাই করোনার টিকা নেওয়ার সর্বনিম্ন বয়স ৩০ বছর নির্ধারণ করে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। পরে দেশে টিকার বেশকিছু চালান আসায় টিকা নিবন্ধনের বয়স আরও কমিয়ে আনা হয়। ২৯ জুলাই থেকে বয়স ২৫ হলেই টিকার জন্য নিবন্ধন করা যেতো।





সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

এ বিভাগের আরও সংবাদ





ebarta24.com © All rights reserved. 2021