1. অন্যরকম
  2. অপরাধ বার্তা
  3. অভিমত
  4. আন্তর্জাতিক সংবাদ
  5. ইতিহাস
  6. এডিটরস' পিক
  7. খেলাধুলা
  8. জাতীয় সংবাদ
  9. টেকসই উন্নয়ন
  10. তথ্য প্রযুক্তি
  11. নির্বাচন বার্তা
  12. প্রতিবেদন
  13. প্রবাস বার্তা
  14. ফিচার
  15. বাণিজ্য ও অর্থনীতি

সৌদিবিরোধী টুইট, মার্কিন নাগরিকের ১৬ বছরের কারাদণ্ড

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ইবার্তা টুয়েন্টিফোর ডটকম
বুধবার, ১৯ অক্টোবর, ২০২২

সৌদি আরবের সরকারবিরোধী টুইট করায় এক মার্কিন নাগরিককে ১৬ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন দেশটির একটি আদালত। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়, সাদ ইব্রাহিম আলমাদি (৭২) নামের ওই ব্যক্তিকে গত নভেম্বরে রিয়াদ থেকে গ্রেফতার করা হয়। তিনি ওই সময় ফ্লোরিডা থেকে পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে রিয়াদ গিয়েছিলেন।

আলমাদির ছেলে ইব্রাহিম আলমাদি জানান, সে তার বাবাকে কারাগারে মরতে দেখতে চান না। তার বাবাকে কারাগারে নির্যাতন করা হচ্ছে বলেও অভিযোগ করেন ইব্রাহিম।

দেশকে অস্থিতিশীল করার চেষ্টা এবং সন্ত্রাসবাদকে সমর্থন ও অর্থায়নের দায়ে সাদ ইব্রাহিম আলমাদিকে দোষী সাব্যস্ত করেন সৌদি আদালত।

ইব্রাহিম আলমাদির অভিযোগ, শুধু টুইট বার্তা প্রমাণ হিসেবে দেখিয়েই তারা বাবাকে এই শাস্তি দেওয়া হয়েছে।

বিবিসি সাদ ইব্রাহিম আলমাদির টুইটগুলো দেখেছে। সেখানে দেখা গেছে তিনি মক্কা এবং জেদ্দা শহরের পুরানো অংশগুলো ভেঙে ফেলার সমালোচনা করেছেন। এছাড়া সাংবাদিক জামাল খাশোগির হত্যাকাণ্ড নিয়েও টুইট বার্তায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছিলেন।

ইব্রাহিম আলমাদি জানান, আইনজীবীরা তার বাবার ৪২ বছরের কারাদণ্ডের জন্য আবেদন করেন। তবে আদালত ১৬ বছরের কারাদণ্ডের নির্দেশ দেন। দুই সপ্তাহ আগেই এই রায় দেওয়া হয়।

গ্রেফতার হওয়ার পর থেকে ইব্রাহিম তার বাবার সঙ্গে এখনো কথা বলতে পারেননি। তবে সৌদি আরবে থাকা পরিবারের সদস্যরা জানিয়েছেন যে তার বাবা ভালো আছেন।

এদিকে যুক্তরাষ্ট্র এ ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছে। মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, রায় দেওয়ার সময় মার্কিন কোনো প্রতিনিধি সেখানে ছিলেন না।

মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র বেদান্ত প্যাটেল বলেন, আমরা রিয়াদ এবং ওয়াশিংটন উভয় চ্যানেলের মাধ্যমে সৌদি সরকারের উর্ধ্বতন পর্যায়ে মামলার বিষয়ে ধারাবাহিকভাবে আমাদের উদ্বেগ উত্থাপন করেছি।

ওয়াশিংটন পোস্টের সাংবাদিক জামাল খাশোগির মৃত্যুর পর সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানকে রক্ষার জন্য এগিয়ে আসেন সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। তবে বাইডেন ক্ষমতায় আসার পর মার্কিন গোয়েন্দা প্রতিবেদনে বলা হয়, সৌদি ক্রাউন প্রিন্সের নির্দেশে খাশোগিকে হত্যা করা হয়। এছাড়া ইয়েমেনে সৌদি হামলা নিয়ে নিয়েও বিরোধিতা করা যুক্তরাষ্ট্র।

সম্প্রতি তেলের দর হ্রাসের ধারা থামাতে সৌদি নেতৃত্বাধীন ওপেক প্লাস তেল উৎপাদন হ্রাসের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এ নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছে যুক্তরাষ্ট্র। এ নিয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেছেন, সৌদি আরবের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের সম্পর্কের অবনতির ফল ভুগতে হবে।

মানবাধিকার নিয়ে দীর্ঘদিন ধরেই সমালোচনার মুখে পড়েছে সৌদি আরব। ব্লগার রাইফ বাদাউই তার ব্লগের জন্য ১০ বছরের কারাদণ্ড ভোগ করেছেন । এছাড়া তার ওয়েবসাইটের বিষয়বস্তুর জন্য তাকে প্রকাশ্যে ৫০ বার বেত্রাঘাত করা হয়েছে।


সর্বশেষ - জাতীয় সংবাদ