1. [email protected] : অনলাইন ডেস্ক : অনলাইন ডেস্ক
  2. [email protected] : নিজস্ব প্রতিবেদক : নিজস্ব প্রতিবেদক
  3. [email protected] : নিউজ এডিটর : নিউজ এডিটর
আফিফকে ইচ্ছাকৃত বল মারায় আফ্রিদির সাজা - ebarta24.com
  1. [email protected] : অনলাইন ডেস্ক : অনলাইন ডেস্ক
  2. [email protected] : নিজস্ব প্রতিবেদক : নিজস্ব প্রতিবেদক
  3. [email protected] : নিউজ এডিটর : নিউজ এডিটর
আফিফকে ইচ্ছাকৃত বল মারায় আফ্রিদির সাজা - ebarta24.com
রবিবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২১, ০৪:২৫ পূর্বাহ্ন

আফিফকে ইচ্ছাকৃত বল মারায় আফ্রিদির সাজা

কমলিকা হাসান
  • সর্বশেষ আপডেট : রবিবার, ২১ নভেম্বর, ২০২১

আইসিসির কোড অব কন্ডাক্ট লেভেল ‘ওয়ান’ ভঙ্গ করায় পাকিস্তানের বোলার শাহীন শাহ আফ্রিদিকে ম্যাচ ফির ১৫ শতাংশ জরিমানা করেছে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল। সঙ্গে যোগ হয়েছে একটি ডিমেরিট পয়েন্ট।

বাংলাদেশের ব্যাটার আফিফ হোসেনের দিকে ইচ্ছাকৃতভাবে বল ছোড়ার অপরাধে জরিমানা গুনলেন পাকিস্তানের পেস বোলার শাহীন শাহ আফ্রিদি।

আইসিসির কোড অব কন্ডাক্ট লেভেল ‘ওয়ান’ ভঙ্গ করায় তাকে ম্যাচ ফির ১৫ শতাংশ জরিমানা করেছে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি)। সঙ্গে পাকিস্তানি এই বোলারের নামে একটি ডিমেরিট পয়েন্টও যোগ করেছে ক্রিকেটের সর্বোচ্চ অভিভাবক।

এক বিবৃতিতে রোববার তথ্যটি জানিয়েছে আইসিসি।

বিবৃতিতে বলা হয়, বাংলাদেশ-পাকিস্তান সিরিজের দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টি ম্যাচে তৃতীয় ওভারের একটি ঘটনা নিয়ে এ জরিমানা। তখন ইচ্ছাকৃতভাবে ব্যাটার আফিফের দিকে বল ছুড়ে মেরেছিলেন শাহীন আফ্রিদি। অথচ রান নেয়ার ইচ্ছাই ছিল না আফিফের।

ফলে আফ্রিদির এমন অহেতুক কাজের বিষয়টিকে অপরাধ হিসেবে চিহ্নিত করেছে আইসিসি। খেলোয়াড়দের আচরণবিধির ২.৯ ধারা লঙ্ঘন করেছেন এই পাকিস্তানি ক্রিকেটার।

নিয়মানুযায়ী কোনো খেলোয়াড় যদি ইচ্ছাকৃতভাবে অন্য কোনো খেলোয়াড়, আম্পায়ার, ম্যাচ রেফারি কিংবা কোনো সাপোর্টিং স্টাফের প্রতি বল কিংবা অন্য ক্রিকেটীয় সরঞ্জাম ছুড়ে মারেন, তাহলে সেটা অপরাধ বলে গণ্য হবে।

আইসিসির মতে, লেভেল ‘ওয়ান’ ভেঙেছেন আফ্রিদি। এ জন্য ম্যাচ ফির ১৫ শতাংশ জরিমানা করা হয়েছে। সঙ্গে একটি ডিমেরিট পয়েন্ট জরিমানা করা হয়েছে তাকে।

ম্যাচ রেফারি নিয়ামুর রশিদ যখন শাহীন আফ্রিদির সামনে বিষয়টি সিদ্ধান্ত উত্থাপন করেন, তখন নিজের অপরাধ স্বীকার করে নেন পাকিস্তানের ক্রিকেটার। ফলে আইসিসির কোভিড-১৯ নীতিমালা অনুসরণ করে আনুষ্ঠানিক শুনানির প্রয়োজন হয়নি।

এর আগে ম্যাচ শেষেই আফিফের কাছে ক্ষমা চাইতে দেখা গেছে আফ্রিদিকে।





সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

এ বিভাগের আরও সংবাদ





ebarta24.com © All rights reserved. 2021