1. alamin@ebarta24.com : ডেস্ক রিপোর্ট : ডেস্ক রিপোর্ট
  2. online@ebarta24.com : অনলাইন ডেস্ক : অনলাইন ডেস্ক
  3. reporter@ebarta24.com : নিজস্ব প্রতিবেদক : নিজস্ব প্রতিবেদক
  4. news@ebarta24.com : নিউজ এডিটর : নিউজ এডিটর
ব্যস্ত কৃষক-শ্রমিক, পঞ্চগড়ে আমনের বাম্পার ফলন - ebarta24.com
  1. alamin@ebarta24.com : ডেস্ক রিপোর্ট : ডেস্ক রিপোর্ট
  2. online@ebarta24.com : অনলাইন ডেস্ক : অনলাইন ডেস্ক
  3. reporter@ebarta24.com : নিজস্ব প্রতিবেদক : নিজস্ব প্রতিবেদক
  4. news@ebarta24.com : নিউজ এডিটর : নিউজ এডিটর
ব্যস্ত কৃষক-শ্রমিক, পঞ্চগড়ে আমনের বাম্পার ফলন - ebarta24.com
মঙ্গলবার, ২৯ নভেম্বর ২০২২, ০৪:৫২ পূর্বাহ্ন

ব্যস্ত কৃষক-শ্রমিক, পঞ্চগড়ে আমনের বাম্পার ফলন

পঞ্চগড় জেলা প্রতিনিধি
  • সর্বশেষ আপডেট : মঙ্গলবার, ২২ নভেম্বর, ২০২২

দেশের সর্ব উত্তরের সীমান্ত জেলা হিমালয় কন্যা পঞ্চগড়। এ জেলায় এখন ফসলের মাঠজুড়ে সোনালী আমন ধানের শীষে দোল খাচ্ছে। মাঠে মাঠে চলছে ধান কাটার হিড়িক এবং শ্রমিক-কৃষকরা পার করছেন ব্যস্ত সময়। এবার বর্ষা মৌসুমে আবহাওয়া বেশ অনুকূলে থাকায় গত বছরের তুলনায় চলতি মৌসুমে বাম্পার ফলন হয়েছে বলে জানিয়েছেন স্থানীয় কৃষকেরা।

পঞ্চগড় উপজেলার সদর ইউনিয়নের বুড়িপাড়া এলাকার কৃষক মো. সাইফুল ইসলাম বলেন, ‘আমি প্রতি বছর প্রায় ৮ থেকে ১০ বিঘা জমিতে আমন ধান রোপণ করে থাকি। গত বছরের তুলনায় চলতি মৌসুমে ধানের বাম্পার ফলনের আশা করছি। গত বছর প্রতি বিঘা জমিতে ধান উৎপাদন হয়েছিল ১৪ থেকে ১৫ মণ পর্যন্ত। এবার চলতি মৌসুমে আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় প্রতি বিঘা জমিতে প্রায় ১৮ থেকে ২০ মণ আমন ধান হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘প্রতি বিঘা জমিতে যে পরিমাণ খরচ হয়েছে তা পুষিয়ে নিয়ে লাভ করা সম্ভব হবে আশা করা যায়। এ বছর বিঘা প্রতি ধানের উৎপাদন বেশি এবং ধানের বাজার মূল্য অনেক ভাল স্থানীয় জগদল বাজারে বর্তমানে প্রতি মণ ধান বিক্রি হচ্ছে ১২৫০ থেকে ১৩০০ টাকা পর্যন্ত। আমার প্রতি বিঘা জমিতে ধান রোপণে খরচ হয়েছে প্রায় ১৩ থেকে ১৪ হাজার টাকা সব মিলিয়ে বিঘা প্রতি জমিতে প্রায় ৫ থেকে ৬ হাজার টাকা মুনাফা হবে।’

বর্গাচাষী মো. হেদলু মিয়া তিনি বলেন, ‘প্রায় ২৪ থেকে ২৫ বিঘা জমি আমি বর্গা চাষ করে থাকি। প্রতিবছর গৃহস্থকে বিঘা প্রতি ১০ মণ করে ধান দিতে হয় সারা বছরের জন্য। গতবছর আমার খাবার সংকট হয়েছিল কিন্তু এবার আর সংকট হবে না আশা করছি। চালের দাম অনুযায়ী বাজারে ধানের দামও ভালো। ধানের ফলন অনেক ভালো হয়েছে।’

পঞ্চগড় কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতর সূত্রে জানা যায়, চলতি মৌসুমে এবার আমন ধানের আবাদের মোট লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ১ লাখ ৩০ হেক্টর জমিতে উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা প্রায় ১ লাখ ৪৬ হাজার ৪০০ পচাঁত্তর মেট্রিক টন ধান। তেঁতুলিয়া উপজেলায় ১১ হাজার ২২৫ হেক্টর জমিতে উৎপাদন ১৪ হাজার ৯২৫, সদর উপজেলায় ২৩ হাজার ৯৫০ হেক্টর জমিতে উৎপাদন ধরা হয়েছে ২২ হাজার ৩৩৪, আটোয়ারী উপজেলায় ১৬ হাজার ৮৭৫ হেক্টর জমিতে উৎপাদন ২১ হাজার ১১২, বোদা উপজেলায় ২৪ হাজার ৩০ হেক্টর জমিতে উৎপাদন ৪৫ হাজার ৮৯২, দেবীগঞ্জ উপজেলায় ২৩ হাজার ৯৩০ হেক্টর জমিতে উৎপাদন ৪২ হাজার ২১২ মেট্রিক টন ধান।

জেলায় উফশী ব্রি-৯৩, স্বর্ণা, ব্রি-৫১, ব্রি-৪৯, ব্রি-৫২, ব্রি-৮৭, ব্রি-৩৪, ব্রি-৭৫ ধানের ফলন চলতি মৌসুমে উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা ছড়িয়ে গেছে।

পঞ্চগড় কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের অতিরিক্ত উপ-পরিচালক (শস্য) মো. শাহ্ আলম মিয়া জানান, পঞ্চগড় জেলায় ব্রি ধান-৯৩ ধান প্রতি বিঘায় ২২ থেকে ২৪ ধান উৎপাদন হয় চলতি মৌসুমে আবওহাওয়া অনুকূলে থাকায় এবং বর্ষার মৌসুমের প্রভাব স্বাভাবিকের কারণে এ জেলায় লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে অধিক ফলন হয়েছে আমন ধানের।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

এ বিভাগের আরও সংবাদ
ebarta24.com © All rights reserved. 2021