রবিবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৪:১৩ অপরাহ্ন

তারেক মাসুদের পরিবারকে ৪ কোটি ৬২ লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণের রায়

ইবার্তা ডেস্ক
আপডেট : রবিবার, ৩ ডিসেম্বর, ২০১৭

নিজস্ব প্রতিবেদক :

সড়ক দুর্ঘটনায় প্রথমবারের মতো চালকের পাশাপাশি অর্থদণ্ড করা হলো বাস মালিককেও। আজ হাইকোর্টের একটি দ্বৈত বেঞ্চ চলচ্চিত্র নির্মাতা তারেক মাসুদ নিহতের ঘটনায়, তার পরিবারকে প্রায় ৪ কোটি ৬২ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণের আদেশ দেন। বলেন, এখন থেকে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ও আহতদের পরিবার, আদালতে ক্ষতিপূরণ চাইতে পারবে। রায়ে সন্তোষ জানিয়েছেন, তারেক মাসুদের স্ত্রী ক্যাথরিন মাসুদ।

 

সড়ক দুর্ঘটনায় দুই কীর্তিমানের এমন নির্মম মৃত্যু….কাঁদায় পুরো দেশকেই। ২০১১ সালের ১৩ আগস্ট মানিকগঞ্জের ঘিওরে, ঢাকা-আরিচা মহাসড়কে সড়ক দুর্ঘটনায় মারা যান চলচ্চিত্র নির্মাতা তারেক মাসুদ ও এটিএন নিউজের প্রধান নির্বাহী মিশুক মুনীরসহ পাঁচজন। এর বছর দুয়েক পর ২০১৩ সালে, তারেক মাসুদ ও মিশুক মুনীরের অকাল মৃত্যুতে ক্ষতিপূরণ চেয়ে, মানিকগঞ্জ জেলা জজ আদালতে মামলা করেন, তারেক মাসুদের স্ত্রী ক্যাথরিন মাসুদ ও মিশুক মুনীরের স্ত্রী কানিজ এফ কাজী। পরে মামলাটি স্থানান্তর করা হয় হাইকোর্টে।

 

প্রায় পাঁচ বছর পর সেই মামলার রায় দিলেন হাইকোর্ট। বাস চালক, ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি ও বাস মালিকে নির্দেশ দেন, তারেক মাসুদের পরিবারকে চার কোটি ৬১ লাখ ৮০ হাজার টাকা ক্ষতিপূরণ দিতে। এরমধ্যে বাস চালককেই দিতে হবে ৩০ লাখ টাকা। আর ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি ৮০ হাজার ও বাকি চার কোটি ৩১ লাখ টাকা দিতে হবে বাস মালিককে। রায়ে বলা হয়, এখন থেকে সড়ক দুর্ঘটনায় আহত ও নিহতদের পরিবার চাইলে, ক্ষতিপূরণ চেয়ে মামলা করতে পারবে আদালতে।

রায়ের প্রতিক্রিয়ায় তারেক মাসুদের স্ত্রী ক্যাথরিন মাসুদ বলেন, তারককে ফিরে পাওয়া যাবে না ঠিকই, তবে এ রায় তাকে সান্তনা দিয়েছে। অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম বলেন, সড়ক দুর্ঘটনায় মৃত্যুর হার কমাতে, এ রায় একটি দৃষ্টান্ত হয়ে থাকবে।

রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করার কথা জানিয়েছেন, বাস চালক ও মালিকের আইনজীবী। যদিও ক্যামেরা সামনে কথা বলতে রাজি হননি তারা। একই দুর্ঘটনায় নিহত মিশুক মুনীরের ক্ষতিপূরণের মামলাটি এখনো শুনানি শেষ হয়নি।


আরও সংবাদ