রবিবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৬:৫০ পূর্বাহ্ন
শীর্ষ সংবাদ
পঁচাত্তরের খুনিদের দায়মুক্তি অধ্যাদেশ “ধর্ষিত” মামুনের স্ক্রিনশপ জালিয়াতি ফাঁস : ইলিয়াস সহ সুশীলদের কটাক্ষ জাতিসংঘে বঙ্গবন্ধুর ভাষণ : বিশ্ব সভায় বাংলা ভাষার প্রথম আনুষ্ঠানিক প্রতিনিধিত্ব গার্ডিয়ানে প্রকাশিত শেখ হাসিনার নিবন্ধ: ‘আ থার্ড অফ মাই কান্ট্রি ওয়াজ জাস্ট আন্ডারওয়াটার। দ্য ওয়ার্ল্ড মাস্ট অ্যাক্ট অন ক্লাইমেট’ হেফাজতের কর্তৃত্ব যাচ্ছে দেওবন্দের কাফের ঘোষিত জামায়াতের কব্জায় ! অনলাইনে মিলছে টিসিবির পেঁয়াজ আজ টিউলিপ সিদ্দিকের জন্মদিন বাংলাদেশের সঙ্গে রাজনৈতিক ও বাণিজ্যিক সম্পর্ক বাড়াতে চায় যুক্তরাষ্ট্র প্রধানমন্ত্রীকে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষামন্ত্রীর ফোন ফ্রন্টিয়ার, ইমার্জিং ও ডেভেলপড মার্কেট রিটার্নে সবার ওপরে বাংলাদেশ

এ বছরে ৯ লাখ ৭৩ হাজার কর্মীর বিদেশে কর্মসংস্থান হয়েছে : প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী

ইবার্তা ডেস্ক
আপডেট : সোমবার, ১৮ ডিসেম্বর, ২০১৭

চলতি বছরে মোট ৯ লাখ ৭৩ হাজার বাংলাদেশী কর্মী বিশ্বের বিভিন্ন দেশে কর্মসংস্থান হয়েছে। এর মধ্যে ১ লাখ ১৮ হাজার মহিলা কর্মীর কর্মসংস্থান হয়েছে। যা এ যাবৎ কালের সর্বোচ্চ সংখ্যক।
এছাড়াও শিগগিরই জাপানে প্রশিক্ষণপাপ্ত কর্মীদের পাঠানো হবে। জাপান বাংলাদেশ থেকে দক্ষ কর্মী নিয়োগের ব্যাপারে আগ্রহ প্রকাশ করার পর এ ব্যাপারে কিছু দিনের মধ্যে জাপান বাংলাদেশের মধ্যে একটি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হবে।
প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী নুরুল ইসলাম বিএসসি রোববার মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে আন্তর্জাতিক অভিবাসী দিবস-২০১৭ উদযাপন উপলক্ষে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন।
তিনি বলেন, প্রবাসী নারীদের নিরাপত্তার ব্যাপারে আমরা বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহন করেছি। এ ব্যাপারে আমরা অত্যন্ত সচেতন রয়েছি। চলতি বছরে বিভিন্ন দেশে ৯ জন প্রবাসী নারীর অভিযোগ পাওয়া গেছে। আমরা এসব সমস্যার দ্রুত সমাধান করেছি।
এ বছরে ১০ লাখের অধিক কর্মীর বিদেশে কর্মসংস্থান হবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করে বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দিক নির্দেশনায় আমরা নারী অভিবাসী কর্মীদের অধিকার ও সুরক্ষার পাশাপাশি অভিবাসনকে নারীর ক্ষমতায়নে রূপান্তরিত করার লক্ষ্যে কাজ করছি।
তিনি বিদেশে নিরাপদ কর্মসংস্থানের জন্য নারী কর্মীদের প্রশিক্ষণের ওপর গুরুত্ব আরোপ করে বলেন, বাংলাদেশী শ্রমিকদের বিশ্বের বিভিন্ন দেশে প্রচুর চাহিদা রয়েছে। চাহিদা অনুযায়ী দক্ষ ও প্রশিক্ষনপ্রাপ্ত কর্মীদের বিভিন্ন দেশে পাঠাতে পারলে তারা অত্যন্ত সুনামের সঙ্গে কাজ করে দেশের ভাবমূর্তি উজ্জল করবে।
বাংলাদেশীদের জন্য জাপানী শ্রম বাজার উন্মুক্ত হওয়ার প্রাক্কালে মন্ত্রণালয়ের নিজস্ব ভবনে আজ মন্ত্রণালয়ের অর্থায়নে একটি স্থায়ী জাপানী ভাষা প্রশিক্ষণ সেন্টারের উদ্বোধন করা হয়।
মন্ত্রী বলেন, জাপানসহ বিভিন্ন দেশে কর্মীদের পাঠানোর লক্ষ্যে সারাদেশে পিছিয়ে পড়া ৪২টি জেলার ২২টি থেকে লোকজন বাছাই করে প্রশিক্ষণ দেয়া হচ্ছে। অভিবাসনে পিছিয়ে পড়া ২২টি জেলার প্রশিক্ষাণার্থীদের নিয়ে আপাতত প্রশিক্ষণটি শুরু করা হয়েছে। অচিরেই অভিবাসনে পিছিয়ে পড়া বাকি ২০টি জেলার প্রশিক্ষণার্থীদের জন্য প্রশিক্ষণ শুরু হবে।
তিনি বলেন, প্রবাসীদের প্রেরিত রেমিটেন্স জাতীয় উন্নয়নের অগ্রগতিকে আরো ত্বরান্বিত করছে। সম্প্রতি বাংলাদেশ অর্থনৈতিক উন্নয়ন বিবেচনায় নি¤œ-মধ্যম আয়ের দেশে উন্নীত হয়েছে। আমাদের এ সাফল্যে প্রবাসী কর্মীদের প্রেরিত রেমিটেন্স গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখছে। ক্রমান্বয়ে রেমিটেন্স প্রবাহ বৃদ্ধির ফলে বাংলাদেশ ব্যাংকে সঞ্চিত বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ উত্তরোত্তর বৃদ্ধি পাচ্ছে, যা আমাদের অর্থনীতিকে শক্ত ভিত্তির উপর দাঁড় করেছে।
‘নিরাপদ অভিবাসন যেখানে, টেকসই উন্নয়ন সেখানে’ এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে আগামীকাল আন্তর্জাতিক অভিবাসী দিবস-২০১৭ উদযাপনের লক্ষ্যে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় ব্যাপক কর্মসূচি গ্রহন করেছে বলে জানান তিনি।


আরও সংবাদ