বৃহস্পতিবার, ০৬ মে ২০২১, ০৬:৫৬ পূর্বাহ্ন
শীর্ষ সংবাদ
অনিয়মের বিরুদ্ধে সাবধান করলেন প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়ার আল্টিমেটামের পরেই হেফাজতের তাণ্ডব সারদেশে প্রধানমন্ত্রীর উপহার পেলেন শ্রমিক, ইমাম, ভ্যানচলক : আশ্রয়হীদের জন্য সরকারি ঘর উগ্রতার দায়ে স্থায়ীভাবে বন্ধ করে দেওয়া হল কঙ্গনার টুইটার অ্যাকাউন্ট বিচ্ছেদের আগেই সম্পত্তি ভাগাভাগির চুক্তি ! ভারতে ১০ হাজার রেমডেসিভির পাঠিয়েছে বাংলাদেশ শফীর মৃত্যুর পর ‘উগ্রপন্থিদের’ হাতে হেফাজত : ইসলামী ঐক্যজোট মমতা শপথ নিলেন টানা তৃতীয়বারের মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে আমাদের রাজনৈতিক কালচারকে ধর্মান্ধতার কবলমুক্ত করা প্রয়োজন কোথাও পাওয়া যায়নি ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট : চট্টগ্রামে শনাক্ত যুক্তরাজ্য ও দক্ষিণ আফ্রিকান

সাতদিন পেঁয়াজ বয়কটের ডাক ভারতে!

ইবার্তা ডেস্ক
আপডেট : সোমবার, ২ ডিসেম্বর, ২০১৯

ভারতের পশ্চিমবঙ্গে পেঁয়াজের দাম সেঞ্চুরি করেছে। দাম কামতে রাজ্য সরকার টাস্ক ফোর্স গড়েছে। তাতেও কমেনি দাম। এখন পেঁয়াজের দামে রাশ টানতে অভিনব উপায় বাতলাচ্ছেন নেটিজেনরা। সোশ্যাল মিডিয়ায় এখন পেঁয়াজ বয়কটের ডাক দিয়ে শুরু হয়েছে জোরদার প্রচারণা। কেউ কেউ জানান, টানা সাতদিন সকলে মিলে একসঙ্গে পেঁয়াজ কেনা বন্ধ রাখলে দ্রুত দাম কমবে। তখন ২০ টাকা কেজি দরে পেঁয়াজ বিক্রি করতে ক্রেতাদের কাছে ছুটে আসবে বিক্রেতারা।
 
প্রস্তাবটি কতটা বাস্তবসম্মত তা নিয়ে যতই প্রশ্ন থাক, পেঁয়াজের অগ্নিমূল্য যে সাধারণ মানুষকে এভাবে বিদ্রোহী করে তুলছে, তা বলাই বাহুল্য। গত প্রায় আড়াই মাস ধরে পেঁয়াজের দাম আকাশ ছোঁয়া। পাইকারি বাজারের দরের সঙ্গে খুচরা বাজারে পেঁয়াজের দামেরও বিস্তর ফারাক। তাই সোশ্যাল মিডিয়ায় দাবি ওঠেছে পেঁয়াজ বয়কটের।
 
কেউ লেখেন, সাতদিন পেঁয়াজ কেনা বন্ধ রাখলে রান্নার সমস্যা হবে না। পেঁয়াজ ছাড়া খাবার খাওয়া সম্ভব। তাহলে বয়কট করলে কোনো ক্ষতি নেই।
 
নেটিজেনদের দাবি, সাত দিন পেঁয়াজ কেনা বন্ধ রাখলে বিক্রেতার ঘরে বস্তা বস্তা পেঁয়াজে পচন শুরু হবে। তখন বাধ্য হবে দাম কমিয়ে তা বিক্রি করতে।


আরও সংবাদ